২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চায়না ওপেন থেকে বিদায় ইভানোভিচ-রাদওয়ানাস্কার

চায়না ওপেন থেকে বিদায় ইভানোভিচ-রাদওয়ানাস্কার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ একই দিনে ঝরে পড়লেন দুই তারকা সার্বিয়ার আনা ইভানোভিচ ও পোল্যান্ডের এ্যাগ্নিয়েস্কা রাদওয়ানাস্কা। কার্লা সুয়ারেজ নাভারো এবং সারা ইরানির পর এবার আনা ইভানোভিচকেও হারিয়ে দিলেন তিমিয়া ব্যাকসিনস্কি। শনিবার চায়না ওপেনের সেমিফাইনালে এই ব্যাকসিনস্কির কাছে হেরেই টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়লেন ইভানোভিচ। অন্য দিকে স্পেনের গার্বিন মুগুরোজার কাছে ৪-৬, ৬-৩ ও ৬-৪ গেমে পরাজিত হন সার্বিয়ান তারকা আনা। সুইজারল্যান্ডের টেনিস তারকা ব্যাকসিনস্কি কঠিন লড়াইয়ে এদিন ৫-৭, ৬-৪ এবং ৬-১ গেমে হারান ইভানোভিচকে। সেইসঙ্গে প্রথমবারের মতো বড় কোন টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠার রেকর্ড গড়লেন তিনি। চায়না ওপেনে দুর্দান্ত পারফর্মেন্স উপহার দিতে পেরে উচ্ছ্বসিত এই সুইস তারকা। তার লক্ষ্য এখন ফাইনালেও পারফর্মেন্সের ধারাবাহিকতা ধরে রাখা।

চলতি মাসের শেষেদিকে সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত হবে ডব্লিউটিএ ফাইনালস। বছরের শেষ সেই টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করবেন বর্তমান টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ আট তারকা। যে কারণে ইভানোভিচের জন্য চায়না ওপেনটা ছিল খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু সেমিফাইনালে এসেই থেমে গেল তার জয়রথ। তবে এদিন ম্যাচে বেশ কয়েকবারই দেখা গেছে ইনজুরিতে আক্রান্ত তিনি। বারবারই চিকিৎসকের দ্বারস্থ হয়েছেন সার্বিয়ান তারকা। কিন্তু তারপরও প্রতিপক্ষের বিপক্ষে লড়াই চালিয়ে গেছেন ইভানোভিচ। প্রথম সেটে দারুণ জয় দিয়েই শুরু করেছিলেন টুর্নামেন্ট। ইভানোভিচ ৭-৫ গেমে হারান ব্যাকসিনস্কিকে। আর এই সেট জেতার জন্য তাদের লড়াই করতে হয়েছে দীর্ঘ ৫৮ মিনিট। প্রথম সেট জিতলেও বাকি দুই সেটেই ঘুরে দাঁড়ান ব্যাকসিনস্কি। দ্বিতীয়টি ৬-৪ গেমে জয়ের পর তিন নাম্বার সেটে তিনি ৬-১ গেমে ইভানোভিচকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো চায়না ওপেনের ফাইনালে উঠার কৃতিত্ব দেখান।

অসাধারণ এই জয়ের পর আনন্দে-উদ্বেলিত তিমিয়া ব্যাকসিনস্কি। কোর্টের সাক্ষাতকারে নিজের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘ম্যাচে কী হবে সেটা নিয়ে আসলে কখনই ভাবতে পারিনি। আমি শুধু চেষ্টা করেছি আমার গেম প্ল্যানে আর পরের পয়েন্ট। এভাবে খেলেই নিজের সেরাটা দিতে পেরেছি। এখন অনেক ভাল লাগছে আমার।’ ইভানোভিচের বিপক্ষে ম্যাচে তিনি ফেবারিট ছিলেন না। সেটা ভক্তদেরও জানা। তাই গ্যালারিতে বেশিরভাগ সমর্থকরাই গলা ফাটিয়েছেন ইভানোভিচের জন্য। তবে কিছু কিছু সমর্থক ব্যাকসিনস্কিরও নাম ধরেও চিৎকার-চেচামেচি করেছেন। যা কৃতজ্ঞ এবং গর্বিত করেছে সুইস তারকাকে। এ বিষয়ে ২৬ বছর বয়সী এই তারকা বলেন, ‘গ্যালারির উপস্থিত সব দর্শকদের প্রতিই আমি কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই। অনেক সমর্থকই আমার জন্য চিৎকার করে গলা ফাটিয়েছেন। তবে আনার ভক্তদের জন্য আমি দুঃখ প্রকাশ করছি। তার জন্যও অনেক সমর্থক চিৎকার করে উৎসাহ-অনুপ্রেরণা দিয়েছেন। কিন্তু আমি আজ অনেক খুশি। যেটা আপনাদের জন্যই হয়েছে। আপনাদের সবাইকেই ভালবাসি আমি। সত্যিই আপনারা আমাকে অবিভূত করেছেন। চীনে খেলতে আমি সবসময়ই ভালবাসি। এখানে গত বছরও খেলেছি আমি।