২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কৃষিপ্রযুক্তি হতে হবে কৃষকবান্ধব - কৃষিমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, কৃষকের ব্যবহারে উপযোগী নয় এমন কোন প্রযুক্তির উদ্ভাবন দেশে টিকবে না, তাই কৃষি প্রযুক্তি হতে হবে কৃষিবান্ধব। কৃষি ক্ষেত্রে বিদ্যুৎচালিত পাম্পের ব্যবহার কমিয়ে বিকল্প হিসাবে সৌর শক্তির ব্যবহার বৃদ্ধি করেত হবে। সৌর চালিত মেশিনারি দিকে মনোযোগ দিতে হবে। প্রাইভেট সেক্টরে যারা কৃষি যন্ত্রপাতি নিয়ে কাজ করছে আগামী বাজেটে তাদের প্রতি আরও বেশি মনোযোগ আকর্ষণ চেষ্টা করা হবে। কৃষিতে আরও বেশি বেশি প্রাইভেট সেক্টরের বিনিয়োগ করার সুযোগ রয়েছে। যন্ত্রপাতির ব্যবহারে দেশ এগিয়ে চলছে, যন্ত্রের মান নিয়ন্ত্রণে টেস্টিং ল্যাব এর বিষয়টি সামনে এসেছে। সবাই দেশপ্রেমে অনুপ্রাণিত হয়ে কৃষির জন্য চিন্তা করছে। কাজ অনেক হচ্ছে, কিন্তু আলাদা আলাদা। উদ্ভাবন ও চিন্তাশক্তি দিয়ে নতুন নতুন কৃষি প্রযুক্তি আবিষ্কার করছেন, সেগুলো অবশ্যই কৃষকবান্ধব হতে হবে।

রবিবার ফার্মগেটের বিএআরসি সম্মেলন কক্ষে ‘দেশীয় উপযোগী কৃষিযন্ত্র উদ্ভাবন, প্রস্তুতকরণ ও স্থানীয় উদ্যোক্তা সৃষ্টিতে করণীয়’ শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। কৃষি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে খামার যান্ত্রিকীকরণের মাধ্যমে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্প- ২য় পর্যায়ের আয়োজনে এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

মতিয়া চৌধুরী বলেন, পানি সাশ্রয়ী কৃষি গড়ে তোলা বর্তমান সরকারের অন্যতম একটি লক্ষ্য। খাল বিল নদী নালা থাকা সত্বেও ভূগর্ভ থেকে পানি তোলার কোন মানে নেই। আবার ওই পানিতে আর্সেনিক আছে কিনা তা নিয়ে গবেষণার নামে ফন্দি করে অর্থ আদায় করছে একটা চক্র।

তিনি বলেন, নদী-নালা খাল বিল উদ্ধার করতে অন্যদিকে জলাধারের পানির ওপর নির্ভরশীলতা বৃদ্ধি করতে হবে। হিমালয় থেকে পানি এসে তা বঙ্গোপসাগরে চলে, তার কতটুকু অংশ আমরা কৃষির জন্যে ব্যবহার করছি তা ভেবে দেখা উচিৎ।

কর্মশালায় মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন খামার যান্ত্রিকীকরণ প্রকল্প-২য় পর্যায়ের প্রকল্প পরিচালক শেখ মো: নাজিম উদ্দিন।

কর্মশালায় কৃষি সম্প্রসারণের মহাপরিচালক কৃষিবিদ মো: হামিদুর রহমানের সভাপতিত্বে অন্যান্যে মধ্যে বক্তব্য রাখেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব শ্যামল কান্তি ঘোষ, বিআরসির নির্বহী চেয়ারম্যান ড. আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

নির্বাচিত সংবাদ