২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

স্থিতিহীনতার পথে তুরস্ক

  • তিন দিনের শোক ॥ এরদোগানের তুর্কমেনিস্তান সফর বাতিল

তুরস্কে শান্তি প্রতিষ্ঠার দাবিতে আয়োজিত সমাবেশের আগে বোমা হামলায় প্রায় এক শ’ লোক নিহত হওয়ার ঘটনা সেদেশে অস্থিরতা বৃদ্ধি পাওয়ারই আভাস। শনিবার রাজধানী আঙ্কারায় শান্তিবাদী কর্মীদের সমাবেশে দু’টি বোমা বিস্ফোরণ তুরস্ক যে এ অভ্যন্তরে ও যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ার সীমান্ত বরাবর ক্রমবর্ধমান সংঘাতের সম্মুখীন, সে কথাই স্মরণ করিয়ে দেয়। মাত্র কয়েক মিনিটের ব্যবধানে এবং কয়েক গজ দূরে সংঘটিত হামলাগুলোতে ৯৭ জন নিহত এবং ২৪৬ ব্যক্তি আহতও হয়। সাম্প্রতিক মাসগুলোতে তুর্কি নিরাপত্তা বাহিনী এবং কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদীরা যে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়, শান্তিকর্মীরা তার অবসান ঘটানোর আহ্বান জানাতে সমবেত হয়েছিল। খবর ওয়াশিংটন পোস্ট ও এএফপির।

ন্যাটো সদস্য ও যুক্তরাষ্ট্রের বড় মিত্র তুরস্কের সঙ্গে সিরিয়া, ইরাক ও ইরানের অভিন্ন সীমান্ত রয়েছে। আর এ তিনটি দেশের সবাই ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে লিপ্ত রয়েছে। তুর্কি কর্মকর্তারা সাম্প্রতিক দিনগুলোতে রুশ বিমানের তুরস্কের আকাশসীমা লঙ্ঘনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে মস্কোর সঙ্গে বিরোধে জড়িত হয়। রুশ জঙ্গী বিমানগুলো সিরীয় বিদ্রোহীদের ওপর হামলা চালানোর সময় ওই আকাশসীমা লঙ্ঘিত হয়। এতে উত্তেজনাও বৃদ্ধি পায়। কুর্দিদের সঙ্গে তুরস্কের কয়েক দশকের পুরনো লড়াই আবার মাথা চাড়া দিয়ে ওঠায় ওই অঞ্চলে আরও অস্থিরতা দেখা দিতে পারে। জাতিগত কুর্দিরা সিরিয়ার গৃহযুদ্ধের কারণে তুরস্কে ছড়িয়ে পড়া সহিংসতার হাত থেকে তাদের রক্ষা করতে ব্যর্থতার দায়ে তুর্কি কর্তৃপক্ষকে অভিযুক্ত করেছে।

জুলাই মাসে সুরুক শহরে কুর্দি শান্তিকর্মীদের আরেক সমাবেশে আত্মঘাতী বোমা হামলা চালানো হলে ৩৩ ব্যক্তি নিহত হয় এবং সেজন্য ইসলামিক স্টেটকে দোষারোপ করা হয়। এরপর তুরস্ক সিরিয়ার অভ্যন্তরে জিহাদীদের ওপর বিমান হামলায় লিপ্ত মার্কিন নেতৃত্বাধীন কোয়ালিশনে যোগ দেয় এবং এ চরমপন্থীদের সম্ভাব্য পাল্টা হামলা মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকে। তুরস্ক সিরিয়া থেকে আগত ২০ লাখেরও বেশি শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়েছে। সরকার শরণার্থীদের অবস্থানকেই রাজনৈতিক অস্থিরতার এক বড় উৎস বলে উল্লেখ করে থাকে। তুর্কি প্রধানমন্ত্রী আহমেদ দাভুতোগলু শনিবার বলেন যে, আত্মঘাতী বোমা হামলাকারীরা ওই বিস্ফোরণ ঘটিয়েছিল বলে জোর আভাস পাওয়া যায়। যদিও কেউই তৎক্ষণাত ওই হামলার দায়দায়িত্ব স্বীকার করেনি।

তিনি বলেন, তুরস্কের ঐক্য, গণতন্ত্র ও স্থিতিশীলতাই ছিল হামলার লক্ষ্যস্থল। ওয়াশিংটন ইনস্টিটিউট ফর নিয়ার ইস্ট পলিসির তুর্কি গবেষণা কর্মসূচীর পরিচালক সোনার কাসাপতে বলেন, ইসলামিক স্টেটই অপরাধী বলে প্রাথমিক আভাসে দেখা যাবে। তিনি বলেন, যাই ঘটুক না কেন, এটি তুরস্কের জন্য যথার্থই ৯/১১ হতে পারে। সহজ কথায় এটি তুরস্কের ইতিহাসে সবচেয়ে মারাত্মক সন্ত্রাসী হামলা। তুর্কি ট্রেড ইউনিয়নগুলোর উদ্যোগে বিক্ষোভকারীরা বোমা বিস্ফোরণের কয়েক ঘণ্টা আগেই আঙ্কারার প্রধান ট্রেন স্টেশনের বাইরে সমবেত হয়। তারা শান্তি প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানিয়ে সেøাগান দেয় এবং ব্যানার ও পতাকা তুলে ধরে। জনতার মধ্যে কুর্দি ও বামপন্থী তুর্কি কর্মীরা ছিল। স্থানীয় প্রচারমাধ্যমে এ কথা বলা হয়।

সামাজিক মাধ্যমে প্রচারিত এক ভিডিওতে দেখা যায়, পেছনের দিকে এক প্রচ- বিস্ফোরণ হওয়ার আগে বিক্ষোভকারীরা হাতে হাত ধরে ঐতিহ্যবাহী নাচ গান করছিল। বিস্ফোরণের পর জনতার মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। দুটি বিস্ফোরণে অন্তত ৯৭ জন নিহত এবং ২৪৬ জন আহত হয়। দুটি বিস্ফোরণের পর পুলিশ ও বিক্ষোভকারীদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। আহতদের চিকিৎসার জন্য ঘটনাস্থলে এ্যাম্বুলেন্স আসার পথে নিরাপত্তা বাহিনী বাধা দেয় বলে কর্মীরা অভিযোগ করেন। তুর্কি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সেলামি আলভিনক এক টিভি অনুষ্ঠানে এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে বলেন, তিনি পদত্যাগ করবেন না, কারণ সেখানে স্বাভাবিক নিরাপত্তা ব্যবস্থার কোন ব্যর্থতা ঘটেনি।