২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে ৭২ ভাগ কোম্পানির দর কমেছে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের দুই পুঁজিবাজারে রবিবারে মূল্য সূচকের পতনে লেনদেন শেষ হয়েছে। সকালে লেনদেন শুরুর পর থেকেই বিনিয়োগকারীদের শেয়ার বিক্রির চাপ বাড়ে। ফলে কোম্পানিগুলোর দরপতনের সঙ্গে দ্রুত সূচকের পতন ঘটতে থাকে। দিনটিতে প্রধান বাজার ঢাকা স্টক একচেঞ্জে লেনদেনের পরিমাণ কমলেও বেড়েছে অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জে (সিএসই)। এদিন ডিএসইতে প্রায় ৭২ শতাংশ কোম্পানির দরপতন হয়েছে। সেখানে মূল সূচকের পতন হয়েছে মোট ১ দশমিক ১১ শতাংশ। মূল সূচকের মতো অপর দুই সূচকও কমেছে ১ শতাংশের বেশি।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, রবিবারে ডিএসইতে ৩৩৮ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে; যা আগের দিনের চেয়ে ২২ কোটি টাকা বা ৬ দশমিক ১৭ শতাংশ কম লেনদেন। আগের দিন এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৩৬০ কোটি টাকার শেয়ার। এদিন ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩১৮টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬০টির, কমেছে ২৩১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৭টির শেয়ার দর।

বাজার বিশ্লেষকদের মতে, দেশের অর্থনীতির সবগুলো সূচক ইতিবাচক থাকলেও মূলত সাধারণ বিনিয়োগকারীদের আস্থা কমে যাওয়ার কারণেই পুঁজিবাজারে দরপতন ঘটছে। এছাড়া দেশে কর্মরত বিদেশী নাগরিকদের নিরাপত্তা সম্পর্কিত নানা গুজবেও বাজারে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে, এতে বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ মানসিকতা নষ্ট হচ্ছে। সবমিলে বাজারে এক ধরনের অস্থিরতা তৈরি হয়েছে। যার প্রভাব পড়ছে সূচক বা লেনদেনে।

সকালে নেতিবাচক প্রবণতা দিয়ে শুরুর পরে ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্য সূচক ৫৩ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৭২৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ১৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ১৩৫ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ২১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৭৯৪ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হলো : লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, বেক্সিমকো ফার্মা, মোজাফফর হোসাইন স্পিনিং মিলস, গ্রামীণ ফোন, ফার কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, ট্রাস্ট ব্যাংক, সাইফ পাওয়ারটেক, আইডিএলসি ফিন্যান্স, বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস এবং ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ বাংলাদেশ লি.।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : এলআর গ্লোবাল মিউচুয়াল ফান্ড, মোজাফফর হোসেন স্পিনিং, খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ, ট্রাস্ট ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ড, সোনালি আঁশ, যমুনা ব্যাংক, কর্ণফুলী ইন্স্যুরেন্স, আইসিবি এমপ্লয়ীজ মিউচুয়াল ফান্ড ও এশিয়ান টাইগার মিউচুয়াল ফান্ড।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : মতিন স্পিনিং, মাইডাস ফাইন্যান্স, দুলা মিয়া কটন, ফাইনা ফুডস, সি এ্যান্ড এ টেক্সটাইল, ইসলামী ইন্স্যুরেন্স, বিডি অটোকারস, তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ, জিপিএইচ ইস্পাত ও নিটল ইন্স্যুরেন্স।

রবিবার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৩৩ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ১৮০ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৪৬৪ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৩৯টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৩৮টির, কমেছে ১৭৮টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩টির।