২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ফের অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে ॥ ১৪ দল

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করার জন্য একটি অশুভ মহল আবারও চেষ্টা করছে। যখন চিহ্নিত যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দ- কার্যকর হওয়ার পথে রয়েছে তখন একটি মহল এ ধরনের অপচেষ্টা চালাচ্ছে। এ ব্যাপারে আমরা সবাই একসঙ্গে কাজ করছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন প্রশাসন এবং ১৪ দল ষড়যন্ত্রকারীদের সেই অপচেষ্টা ব্যর্থ করে দেবে।

সোমবার রাতে ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সঙ্গে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীস্টান ঐক্য পরিষদ সমন্বয় সেলের এক মতবিনিময় সভা শেষে প্রেস ব্রিফিংয়ে মোহাম্মদ নাসিম আরও বলেন, এবারও সারাদেশে শারদীয় দুর্গোৎসব উৎসবমুখর পরিবেশে হবে। দুর্গোৎসবে নিরাপত্তা নিতে জনপ্রতিনিধিসহ আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের নেতাকর্মীরা প্রশাসনকে সহযোগিতা করবে। একই সঙ্গে তিনি এবারও দুর্গোৎসব যাতে নির্বিঘেœ হয় সেজন্য সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানান।

বৈঠকে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপুজো সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা নিয়ে কিছুটা উদ্বেগ জানিয়েছে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীস্টান ঐক্য পরিষদের নেতারা। তবে পুজো উদ্যাপনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের পক্ষ থেকে সরকারীভাবে এবং রাজনৈতিকভাবে সকল ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেয়া হয়েছে।

সূত্র জানায়, ঐক্য পরিষদের নেতাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেন, সারাদেশে ২৯ হাজার ৭৪টি পুজোম-পের মধ্যে মাত্র ১১টিতে হামলা এটি আসলে একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা। আর সবচেয়ে বড় কথা প্রতিটি ঘটনাতেই আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি। আমাদের সব জায়গায় নির্দেশ দেয়া আছে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, তারা যেন আগের মতোই আরও নিñিদ্র নিরাপত্তার মধ্য এবারের দুর্গাপুজোর উৎসব নির্বিঘœ করতে পারে সেজন্য সহযোগিতা করেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে বৈঠকে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান বনমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমেদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মৃণাল কান্তি দাস, অসীম কুমার উকিল, সুজিত রায় নন্দী, একেএম এনামুল হক শামীম, ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা আনিসুর রহমান মল্লিক, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের ডাঃ ওয়াজেদুল ইসলাম, বাসদের রেজাউর রশীদ খান প্রমুখ। হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীস্টান ঐক্য পরিষদ সমন্বয় সেলের মধ্যে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীস্টান ঐক্য পরিষদের সহ-সভাপতি অধ্যাপক ড. নিম চন্দ্র ভৌমিক, সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট রানা দাসগুপ্ত, পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি কাজল দেবনাথ, সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত কুমার দেসহ সংগঠন দুটির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

আবদুর রহিমের শয্যাপাশে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ॥ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একান্ত সহচর অসুস্থ আওয়ামী লীগ নেতা আবদুর রহিমকে দেখতে রবিবার ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হাসপাতালে যান স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। সেখানে তিনি কিছুক্ষণ অবস্থান করে আবদুর রহিমের শারীরিক অবস্থা ও চিকিৎসার খোঁজখবর নেন। এ সময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী তাঁর যথাযথ চিকিৎসা নিশ্চিত করার জন্য কর্তব্যরত চিকিৎসকদের নির্দেশ দেন।

এ সময় ডেপুটি স্পীকার এ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়া, আবদুর রহিমের পুত্র বিচারপতি এনায়েতুর রহিম, আরেক পুত্র জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিমসহ স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন।