২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

দুর্গাপুজোয় জমজমাট রাজধানীর শপিং মল

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজাকে কেন্দ্র করে জমজমাট হয়ে উঠেছে রাজধানীর শপিংমল আর বিপণি বিতানগুলো। বাজারে পোশাকের কালেকশন আর দাম নিয়ে রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। ভিড় কম থাকায় স্বাচ্ছন্দ্যে কেনাকাটার সুযোগ পাওয়ায় স্বস্তি প্রকাশ করেছেন ক্রেতারা। আর এ বছর ঈদ আর পূজা একসঙ্গে না হওয়ায় ব্যবসায়ীরাও আছেন খোশমেজাজে। বেচাকেনার লক্ষ্য পূরণে এবার অন্তত কোন সমস্যা হবে না বলেই মনে করছেন তারা।

সাদা মেঘের ভেলা আর শরতের কাশফুলের স্নিগ্ধতায় সিঁদুররাঙা আমেজ নিয়ে আসছে শারদীয় দুর্গাপূজা। ম-প, প্রতিমা সাজানোর পাশাপাশি এখনকার আয়োজনে যোগ হয়েছে সাজ পোশাকের খুঁটিনাটি। পূজা চলে কয়েকদিন ধরে, তাই অনেকেরই লক্ষ্য থাকে একাধিক পোশাক কেনার। সাধ আর সাধ্যের সমন্বয় ঘটিয়ে দেবী দুর্গাকে নতুন পোশাকে বরণ করাতেই যেন উৎসবের সার্থকতা। শপিংমল আর বিপণিবিতানগুলোতেও দেখা গেল শারদীয় উৎসবের আলোকচ্ছটা।

পূজা উপলক্ষে ফ্যাশন হাউজ, শপিং মল কিংবা ফুটপাথ, সবখানেই রয়েছে বিশেষ আয়োজন। এ বছর জয়শ্রী সিল্ক, সেমি দুপিয়ান, এ্যান্ডি কটন, মিরপুর কাতান শাড়ির পাশাপাশি সুতি সালোয়ার কামিজের চাহিদা-ই বেশি বলে জানালেন বিক্রেতারা। পূজাকে কেন্দ্র করে নেয়া ব্যবসায়িক লক্ষ্য পূরণে অনেকটাই সফলতা পেয়েছেন বলেও মনে করছেন তারা। পূজা শুরু হতে এখনও বাকি কয়েক দিন, শেষ মুহূর্তে বেচাকেনা আরও বাড়বে, এমন চিন্তা করেই নতুন করে পোশাক সামগ্রী আমদানির কথাও জানালেন ব্যবসায়ীরা।

আট দিন বন্ধ হিলি স্থলবন্দর

অর্থনৈতিক রিপোর্টার॥ শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে হিলি স্থলবন্দর ১৮ অক্টোবর থেকে ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত আট দিন বন্ধ থাকবে। এ সময় ইমিগ্রেশন দিয়ে ভারত-বাংলাদেশ যাত্রী পারাপার চালু থাকলেও পণ্য আমদানি-রফতানিসহ সব কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ২৬ অক্টোবর থেকে ফের আমদানি-রফতানি বাণিজ্য চালু হওয়ার কথা রয়েছে।

বাংলাহিলি কাস্টমস সিএ্যান্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের সচিব শাহিনুর ইসলাম শাহিন জানান, দুর্গাপূজার সময় হিলি স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশে পণ্য রফতানি না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতের হিলি এক্সপোর্টার্স এ্যান্ড সিএ্যান্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশন। এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অশোক কুমার স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি চিঠি সোমবার আমাদের কাছে এসেছে। পরে বিষয়টি চিঠি দ্বারা হিলি স্থলবন্দরের সব আমদানি-রফতানিকারক, হিলি শুল্কস্টেশন, পানামা হিলি পোর্টসহ বন্দর সংশ্লিষ্ট সবাইকে জানানো হয়েছে।