২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রেকর্ডের অপেক্ষায় ইউনুস খান

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দুই গ্রেট ইনজামাম-উল হক ও জাভেদ মিয়াদাদকে ছাড়িয়ে পাকিস্তানের সর্বোচ্চ টেস্ট রানের মালিক হওয়ার দ্বারপ্রান্তে ইউনুস খান। দেশের হয়ে রেকর্ড গড়তে আর মাত্র ২৮ রান চাই ৩৭ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যানের। ৮,৮৩২ রান নিয়ে বর্তমানে সবার ওপরে মিয়াদাদ। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইনজামামের রান ৮,৮২৯। আর ইউনসের ঝুলিতে ৮,৮১৪। আরব আমিরাতে আজ থেকে শুরু হচ্ছে পাকিস্তান-ইংল্যান্ড তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট। আবুধাবির প্রথম ম্যাচেই হয়ত অনন্য উচ্চতায় পৌঁছে যাবেন ফর্মের তুঙ্গে থাকা ইউনুস। কিছুদিন আগে শ্রীলঙ্কা সফরেও যিনি দুর্দান্ত ব্যাটিংশৈলী উপহার দিয়েছেন। পাকিস্তানের হয়ে একে একে অনেক রেকর্ডেই নাম লিখিয়ে যাচ্ছেন ক্ল্যাসিক্যাল উইলোবাজ। ‘পাকিস্তানের হয়ে সর্বোচ্চ টেস্ট রানের মালিক হলে সেটা হবে দারুণ কিছু। তবে নিজেকে মিয়াদাদের সঙ্গে তুলনা করতে চাই না। তিনি একজন কিংবদন্তি। আমি কেবল ব্যাট হাতে দেশের সেবা করতে পেরেই খুশি।’ বলেন ইউনুস। তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমি কিছুতেই মিয়াদাদ-ইনজামামদের সমকক্ষ নই। তারা পাকিস্তান ক্রিকেটের স্বপ্নপুরুষ, আমারও আইডল। তাদের সঙ্গে নিজের তুলনা করাটা ধৃষ্টতার সামিল। কেবল সামর্থ্যরে সেরাটা দিয়ে ব্যাটিং করাই আমার লক্ষ্য। ইনজামাম-মোহাম্মদ ইউসুফদের দেখেছি, দলের জন্য জীবন বাজি রেখেছেন তারা। দলের জয়ে অবদান রাখতে পারলে আমিও গর্ববোধ করি।’ রেকর্ড সামনে রেখে কোন বাড়তি অনুভূতি কাজ করছে না বলেও উল্লেখ করেন ইউনুস, ‘রেকর্ড নয়, আমি বরং গোটা সিরিজের দিকে তাকাতে চাই। ইংল্যান্ডের সঙ্গে এই সিরিজটা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। জয় পেতে সেরাটা দিতে চাই।’

কেবল সর্বোচ্চ রানই নয়, পাকিস্তানের হয়ে আরও অনেক অর্জনে ইতোমধ্যে নিজেকে সামিল করেছেন ইউনুস। দেশটির হয়ে সবচেয়ে বেশি ৩০ সেঞ্চুরির মালিক তিনিই। ২৫, ২৪ ও ২৩টি করে সেঞ্চুরি নিয়ে তার পেছনে যথাক্রমে গ্রেট ইনজামাম, মোহাম্মদ ইউসুফ ও মিয়াদাদ। সাদা পোশাকে হাফসেঞ্চুরি হাঁকানোর দিক দিয়ে ইউনুসের (৫৯) সামনে কেবল মিয়াদাদ (৬৬) আর ইনজামাম (৭১)। ৫৭ ও ৪৪ হাফসেঞ্চুরি নিয়ে পেছনে ইউসুফ ও সেলিম মালিক। মাত্র পঞ্চম পাকিস্তানী হিসেবে ১শ’র বেশি টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতা অর্জন করেন তিনি। ইউনুস খেলেছেন ১০১ ম্যাচ। ১২৪, ১১৯, ১০৪ ও ১০৩ টেস্ট খেলা চার তারকা মিয়াদাদ, ইনজামাম, ওয়াসিম আকরম ও সেলিম মালিক অনেক আগেই সাবেক হয়ে গেছেন। বয়স যদিও ৩৭, তবে ইউনুস যে রকম ফর্মে আছেন, আর বছর দুয়েক খেললে এই তালিকাতেও অনেক দূর এগিয়ে যাবেন তিনি। গত ৩ জুলাই পাল্লেকেলেতে নিজের শেষ ম্যাচে ইনুস খেলেন অপরাজিত ১৭১ রানের দুরন্ত ইনিংস। ৭ উইকেটের বিশাল জয়ে হন ম্যাচসেরা।

নির্বাচিত সংবাদ