১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চায়না ওপেনে জোকোভিচের রাজত্ব

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আবারও ব্যর্থ হলেন রাফায়েল নাদাল। স্প্যানিশ এই টেনিস তারকাকে হারিয়ে চায়না ওপেনে নিজের দাপট অব্যাহত রাখলেন নোভাক জোকোভিচ। রবিবার টুর্নামেন্টের ফাইনালে বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ তারকা জোকোভিচ ৬-২ এবং ৬-২ গেমের সরাসরি সেটে নাদালকে পরাজয়ের স্বাদ উপহার দেন। সেইসঙ্গে ষষ্ঠবারের মতো এই টুর্নামেন্টের শিরোপা নিজের শোকেসে তুলেন সার্বিয়ান তারকা জোকোভিচ। শুধু তাই নয়, চীনের এই টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত পরাজয় দেখেনি তিনি। টুর্নামেন্টের ফাইনালে সাবেক নাম্বার ওয়ান তারকা রাফায়েল নাদালের বিপক্ষে এদিন টানা ২৯তম জয় তুলে নেন জোকোভিচ। অসাধারণ এই কীর্তির পর আনন্দে-উদ্বেলিত তিনি। পারফর্মেন্সের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেই মৌসুম শেষ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন জোকোভিচ। চাইনিজ রাজধানী বেজিংয়ের ন্যাশনাল টেনিস সেন্টারের এই ফাইনালের দ্বিতীয় সেটে অবশ্য পায়ের সমস্যায় পড়েছিলেন নাদাল। গত বছর থেকেই ইনজুরির সঙ্গে ক্রমাগত লড়াই করে আসছেন তিনি। রবিবার ফাইনালের ম্যাচে দ্বিতীয় সেটে গোড়ালিতে চোট পাওয়ায় তাকে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হয়। তারপর থেকেই খুব একটা স্বাচ্ছন্দ্যে ছিলেন না নাদাল। যদিও ততক্ষণে জোকোভিচ নিজেকে শিরোপার কাছাকাছি নিয়ে যান। শেষ পর্যন্ত নাদালকে হারিয়ে শিরোপা জয়ের হাসি হেসে কোর্ট ত্যাগ করেন তিনি। চায়না ওপেনে এখন পর্যন্ত কোন ম্যাচে পরাজিত হননি জোকোভিচ। পরিসংখ্যান ঘাটলে দেখা যায় গত ছয় বছরে মাত্র তিন সেট হেরেছেন এখানে। এবার ফাইনালে উঠতে তার হার ১৪ গেমে। প্রকৃতপক্ষে অবিশ্বাস্যই বলতে হয়। তা জোকোভিচ নিজেও মানছেন।

এটাকেই ক্যারিয়ারের সবচেয়ে সেরা টুর্নামেন্ট বলে মন্তব্য করেছেন তিনি, ‘আমার সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে নিঃসন্দেহে এটাই সেরা টুর্নামেন্ট।’ এ জন্য জোকোভিচ অবশ্য বক্ত-অনুরাগীদের প্রতিই কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করলেন, ‘এখানে এসে প্রতিবছরই সর্বোচ্চটা দেয়ার পেছনের কারণ অবশ্যই সমর্থকরা।’ ২৮ বছর বয়সী এই সার্বিয়ান তারকার ঝুলিতে এখন ৫৬ শিরোপা জমা হলো। এর মধ্যে চলতি বছরই অস্ট্রেলিয়ান ওপেন, উইম্বল্ডন ও ইউএস ওপেনসহ মোট আট শিরোপা জিতেছেন তিনি। শুধু তাই নয়, ফ্রেঞ্চ ওপেনের ফাইনালে স্টানিসøাস ওয়ারিঙ্কার কাছে না হারলে ‘ক্যালেন্ডার সøাম’ জয়ের মাইলফলকও গড়তেন জোকোভিচ। সার্বিয়ান তারকার সামনে এখন সাংহাই ওপেন। এখানে টেনিসের সেরা সেরা সব তারকারাই পারফর্মেন্স করবেন। সুইজারল্যান্ডের রজার ফেদেরার, স্টানিসøাস ওয়ারিঙ্কা, ব্রিটেনের এ্যান্ডি মারে এবং নাদালও খেলবেন এই টুর্নামেন্টে। শীর্ষ বাছাই হিসেবে এই ইভেন্টে খেলবেন জোকোভিচ।