২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মার্কিন টপ মেটাল ব্যান্ড

হেভি মেটাল প্রথম দিকে ইউরোপ-উত্তর আমেরিকা দুই মহাদেশেই সমান্তরালভাবে যাত্রা শুরু করে। আটলান্টিকের দু’পাড়েই মিউজিকের এ নব জাগরণ পাশ্চাত্যের সাংস্কৃতিক জগতে এক নতুন মেরুকরণের দৃষ্টি করেছে। সত্তরের দশকের তরুণদের মাঝে সমাজ-রাষ্ট্র নিয়ে যে জিজ্ঞাসা তার সুরকেই একতালে গাঁথার চেষ্টা করেছেন এই ধারার অগ্রজ মিউজিশিয়ানরা। ব্ল্যাক সাবাথ কিংবা ডিপ পাপেলকে এই ক্ষেত্রে সামনে নিয়ে আসা যায়। বিখ্যাত দুই ব্যান্ড দলের অনবদ্য সব সুরকারই নতুন এক আবহের সৃষ্টি করে। রনি জেমস ডিওকে এই হেভি মেটাল মিউজিকের গুরু বললেও অত্যুক্তি হবে না। ডিওর গান গাওয়ার ধরন এবং গিটারিস্ট ব্লাকমোরের বাজনা সমসাময়িক সকলকে রক মিউজিশিয়ানদের ছাড়িয়ে যায়। ব্লাক সাবাথের ভোকাল অজিওস বর্ণকেও এ ক্ষেত্রে উল্লেখ করা যায়। এমন হার্ড রক সুরকারদের দ্বারা প্রভাবিত পরবর্তী প্রজন্ম নতুন ইতিহাস হেভি মেটাল। যা পরবর্তীতে-ডেথ-পাওয়ার এবং বর্তমানে ব্লাক মেটাল বিভিন্ন ধারায় বিস্তৃত।

হেভি মেটাল সঙ্গীতের উৎপত্তি যুক্তরাজ্যের দিকে হলেও বিশ্বের সকল প্রান্তে বর্তমানে তা ছড়িয়ে পড়েছে। তবে বিশ্বব্যাপী তা ছড়িয়ে পড়ার পেছনে আমেরিকার মেটাল দলগুলোর জোরালো ভূমিকা রয়েছে। সত্তরের দশকে ব্রিটিশ হেভি মেটাল দলের জয়জয়কার থাকলেও আশির দশকে আমেরিকান থ্রাশ মেটাল দলগুলো শক্তিশালী অবস্থানে চলে যায়। পরবর্তী ব্যান্ড আমেরিকান মেটাল দলের সংখ্যা বাড়তে থাকে এবং বিশ্বে মেটাল সঙ্গীতকে আরও শক্তিশালী অবস্থায় নিতে তাদের ভূমিকা মনে রাখতেই হবে। লাউডওয়্যার ম্যাগাজিন কিছুদিন আগে আমেরিকার দশটি মেটাল দলের একটি শীর্ষ তালিকা প্রকাশ করেছে। হেভি মেটাল, থ্রাশ মেটাল, গ্রুভ মেটাল, ন্যু মেটাল, ডেথ মেটাল, অল্টারনেটিভ মেটালসহ বিভিন্ন ধাঁচের মেটাল ধারার বিশ্ববিখ্যাত দশটি দলের নাম সেখানে সন্ধান পেয়েছে। প্রতিটি দলই মেটাল সঙ্গীতের অগ্রযাত্রায় নতুন মাত্রা যুক্ত করেছে। এদের দ্বারা প্রভাবিত হয়েছে অগণিত ভক্ত-শ্রোতা। এবং সর্বোপরি তারা হেভি মেটাল ধারাকে বহুদূর এগিয়ে নিয়ে গিয়েছে। তাদের কাজ দিয়ে জয় করেছে লাখো কোটি সঙ্গীত পিপাসুকে।

বছরখানেক আগেই বিগ-ফোর নামে : মেটালিকা, প্লেয়ার, মেগাডেথ এবং এনথ্যাক্স কনসার্ট অনুষ্ঠিত হয় কয়েকটি দেশে। এখন প্রকাশ করা হলো টপ টেন। তবে এ তালিকায় সিস্টেম অব ডাউনের ঢুকে পড়া যেমন বিস্ময়ের তেমন ব্যান্ডটির ভক্তদের জন্যও অনেক আনন্দের। হেভি মেটাল ব্যান্ডদের শীর্ষ তালিকায় যুক্ত হওয়া এই আর্মেনিয়ান ব্যান্ড অল্প সময়ের মধ্যেই নিজের ধারাকে জনপ্রিয় এবং সমৃদ্ধ করে। তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে প্যান্টেরার উঠে আসাটা ডায়ামব্যাগের ভক্তদের কাছে কিছুটা স্বস্তির।

হেভি মেটাল জগতের সবচেয়ে প্রতিভাবান এই গিটারিস্টের জীবন যৌবনেই নিভে যায়। ডায়ামব্যাগের মৃত্যুর বহু আগেই ব্যান্ড ছাড়েন ভোকাল ফিলিপ এন সেলমো। প্যান্টেরার তালিকায় উঠে আসার মধ্যে বিস্ময়ের কিছু নেই, বরং নিজেদের যোগ্যতা বলেই তাদের এই অবস্থান।

ডিপ্রজন্ম ডেস্ক