১৭ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

স্বর্ণ চোরাচালানে জড়িত মানি একচেঞ্জ ব্যবসায়ী ও বিমানবন্দর কর্মচারী

স্বর্ণ  চোরাচালানে জড়িত মানি একচেঞ্জ ব্যবসায়ী ও বিমানবন্দর কর্মচারী

অনলাইন রির্পোটার ॥ শাহজালাল বিমানবন্দরে জব্দ করা ৪৫ কেজি স্বর্ণ চোরাচালানের সঙ্গে দুই জন মানি এক্সচেঞ্জ ব্যবসায়ী এবং দুই জন বিমানবন্দরের কর্মচারী জড়িত থাকার তথ্য পাওয়া গেছে।

স্বর্ণসহ গ্রেফতারকৃত মালয়েশিয়ার তিন নাগরিককে জিজ্ঞাসাবাদে বিমানবন্দর থানা পুলিশ জড়িতদের সর্ম্পকে এ তথ্য পায়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন-হে ওই খং (৩৮), জোহারি বিন হারুন (৪১) এবং আজওয়ান বিন সালেহিন (২১)।

গত শনিবার ৪৫ কেজি স্বর্ণসহ এই তিনজনকে আটক করে ঢাকা কাস্টমস হাউজ।

রোববার ঢাকা কাষ্টমস হাউজের দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও বিমানবন্দর থানা সূত্র জানায়, জিজ্ঞাসাবাদে স্বর্ণ চোরাচালানে দুই জন মানি একচেঞ্জ ব্যবসায়ী ও দুই জন বিমানবন্দরের তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী নাম পাওয়া গেছে।

ব্যবসায়ী দু’জনই বিমানবন্দর থানা এলাকায় মানি এক্সচেঞ্জ’র ব্যবসার পাশাপাশি স্বর্ণ চোরাচালানের সঙ্গে জড়িত। আর বিমানবন্দরের তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারীর মধ্যে একজন মালি, অপরজন ট্রলার ম্যান পদে চাকরি করেন।

তারা দীর্ঘদিন ধরে কাজের ফাঁকে বিমানবন্দরে স্বর্ণ চোরাচালনে সহযোগিতা করে আসছে। চোরাই পথে আসা বিমানবন্দর থেকে স্বর্ণ কৌশলে বাইরে বের করার দায়িত্ব ছিল তাদের ওপর।

এসব স্বর্ণ ভারতে পাচার করার জন্যই আনা হয়েছিলো বলে জানায় তদন্ত সূত্র। এছাড়া এর সঙ্গে একটি প্রভাবশালী চোরাচালান চক্র জড়িত আছে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্ট তদন্ত কর্মকর্তারা।

নির্বাচিত সংবাদ