২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নীলফামারীতে আমন ক্ষেতে পোকার প্রাদুর্ভাব

নীলফামারীতে আমন ক্ষেতে পোকার প্রাদুর্ভাব

স্টাফ রির্পোটার, নীলফামারী॥ নীলফামারীর ৬ উপজেলার ৬০ ইউনিয়নের অধিকাংশ জমিতে আমন ক্ষেতে প্রার্দুভাব দেখা দিয়েছে। কৃষককুলের দাবি ধান ক্ষেতে কারেন্ট পোকার আক্রমনে ফসলহানির আশঙ্কায় তারা দিশেহারা। তবে নীলফামারী কৃষি বিভাগের দাবি জেলায় কোথাও কোন কারেন্ট পোকার প্রাদুর্ভাব ঘটেনি। এটি বিএলবি ধরনের রোগ। ধান ক্ষেতে পরামর্শ অনুযায়ী স্প্রে করলে ওই রোগ সেরে যাবে।

গত দুই দিনে জেলা সদর,ডোমার ,ডিমলা, কিশোরীগঞ্জ,জলঢাকা ও সৈয়দপুর উপজেলার প্রায় ২০ হাজার হেক্টর জমিতে এ ধরনের পোকা ছেয়ে গেছে। চাষীদের অভিযোগ বাদামী গাছ ফড়িং (বিপিএইচ) বা কারেন্ট পোকা ছড়িয়ে পড়ছে আমন ক্ষেতে। ধানগাছে কাইচথোড় আসার পর পোকার আক্রমণ বেড়ে যায়। তীব্র আক্রমণে ধান গাছ প্রথমে হলুদ ও শুকিয়ে যেতে শুরু করেছে।

এ ব্যাপারে নীলফামারী কৃষি বিভাগের উপ-পরিচালক গোলাম মোঃ ইদ্রিস জানান কারেন্ট পোকার আক্রমনে ফসলের মাঠ পুড়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেনি। বিএলবি নামের একটি রোগ এসেছে তাও বিচ্ছিন্ন ভাবে ব্রি- ১১ জাতের ধানে । কিছু এলাকায় হলুন বর্ণের বিএলবি রোগ দেখা দিয়েছে। এটি বড় কোন সমস্যা নয়। ১০ শতক জমির জন্য ৬০ গ্রাম পটাশ ৩০ গ্রাম জিংক সালফার ও ৬০ গ্রাম কিউভিট পানির সাথে মিশিয়ে ধান ক্ষেতে স্প্রে করলে সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে। এ জন্য কৃষককদের সচেতন ও পরামর্শে প্রচারপত্র বিলি করা হয়েছে এবং হচ্ছে।