১৩ অক্টোবর ২০১৫

এখনও ড্রাগন আছে!

এখনও ড্রাগন আছে!

ড্রাগন কেবল রূপকথা কিংবা কল্পকাহিনীতেই আছে এমনটা নয়, বাস্তবেও আছে। কি চমকে উঠলেন! বর্তমান এই পৃথিবীতেই বহাল তবিয়তে হেসে খেলে বেড়াচ্ছে ড্রাগন। ভাবছেন, গুল। আসলেই আছে। তবে তা অগ্নিমুখো কোন ড্রাগন নয়, এর ক্ষুদ্র সংস্করণ। এর নাম ড্র্যাকো ভলানস। টিকটিকি প্রজাতির এ সরীসৃপটি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় ফ্লাইং ড্রাগন নামে পরিচিত। ফ্লাইং ড্রাগন ১৭৫৮ সালে প্রথম শ্রেণীবিন্যাস করা হয়।

গাছে বসবাসকারী ফ্লাইং ড্রাগনের অমসৃণ দেহের সঙ্গে সংযুক্ত রয়েছে দুটো পাখা। শিকার করতে বা নিজেকে শিকারির হাত থেকে রক্ষা করতে এরা পাখা দুটো ব্যবহার করে। ড্র্যাকো ভলানস এক লাফে ত্রিশ ফুট পর্যন্ত দূরে পৌঁছাতে পারে। তবে কল্পনার ড্রাগনের সঙ্গে এদের পার্থক্য হলো এরা লম্বায় হয় মাত্র আট ইঞ্চি পর্যন্ত। এদের গঠন বিন্যাস সর্বোচ্চ বারো ইঞ্চির মধ্যেই সীমদ্ধ। তবে স্ত্রী ড্র্যাকোরা পুরুষদের তুলনায় বড় হয়। এদের নিশ্বাসে আগুনের উত্তাপ বা আগুন কোনটাই নেই। তবে কোন কোন ড্র্যাকো ভলানসের চোয়ালের নিচের অংশ খানিক বর্ধিত।

স্ত্রী ড্র্যাকোরা মাটিতে ডিম পেড়ে পাহারা দেয়। চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে ডিম ফুটে বের করা পর্যন্তই তাদের কাজ। তারপর বাচ্চারা নিজেরাই নিজেদের দায়িত্ব নেয়। এই ড্রাগন দেখতে কিন্তু ভারী সুন্দর। মন ভরে যায়।

সূত্র: ওয়েবসাইট