২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিষপানের রোগী ওয়াশ করেন নৈশপ্রহরী ঝাড়ুদার

  • যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতাল

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে বিষপানে অসুস্থ রোগীদের ওয়াশ করেন ঝাড়ুদার ও নৈশপ্রহরী। দীর্ঘদিন ধরে সরকারী এ হাসপাতালে নিয়মবহির্ভূতভাবে এ কর্মকা- চালানো হচ্ছে। জরুরী বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসকদের বিষপানে অসুস্থ রোগীদের ওয়াশ করার নিয়ম থাকলেও তা মানা হচ্ছে না। জানা গেছে, জনবল সংকটের অজুহাতে ঝাড়ুদার ও নৈশপ্রহরী এ কাজ করার সযোগ পাচ্ছেন। ত্রুটিপূর্ণ ওয়াশের কারণে অনেকের মৃত্যু হতে পারে। সরকারী নিয়মানুযায়ী হাসপাতালে বিষপানে কোন রোগী ভর্তি হলে জরুরী বিভাগে দায়িত্বরত মেডিক্যাল অফিসার তার ওয়াস করে ওয়ার্ডে পাঠাবেন চিকিৎসার জন্য। কিন্তু এ হাসপাতালে তা মানা হয় না। সোমবার দুপুরে হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে, এদিন বিষপান করে এসেছেন যশোর সদর উপজেলার কাশিমপুর ইউনিয়নের দোলতদিহি গ্রামের গুড় বিক্রেতা লিয়াকত হোসেন (৬০)। এ সময় জরুরী বিভাগে চিকিৎসাধীন ছিলেন ডাঃ কাজল মল্লিক। অথচ ওই রোগীকে ওয়াশ করার স্থানে নিয়ে গিয়ে দেখা গেল, রোগীকে ওয়াশ করছেন হাসপাতালের ঝাড়ুদার নিমাই। তাকে সহায়তা করছে রোগীর এক স্বজন। এর আগে গত ৪ অক্টোবর আমদাবাদ গ্রামের সাইদুল ইসলামের ছেলে বাদলের বিষ ওয়াশ করেন হাসপাতালের নৈশপ্রহরী কামাল হোসেন। এ সময় সেখানে কোন চিকিৎসক বা ওয়ার্ডবয়কে দেখা যায়নি। এ প্রসঙ্গে হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসা (আরএমএ রাজস্ব) ডাঃ শামসুল হাসান দোদুল জানিয়েছেন, জরুরি বিভাগে যে চিকিৎসক দায়িত্বে থাকবেন তিনি রোগীকে ওয়াশ করবেন। তবে জনবল সংকটের কারণে চিকিৎসকের সহায়তায় ওয়ার্ডবয় রোগীকে ওয়াশ করতে পারেন। কোন ঝাড়ুদার বা নৈশপ্রহরী বিষপানে রোগীর ওয়াশ করতে পারেন না। সোমবার দুপুরে জরুরী বিভাগে দায়িত্বে থাকা চিকিৎসক কাজল মল্লিকের কাছে জানতে চাইলে বলেন, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগযোগ করেন, উত্তর পেয়ে যাবেন। কথা হয় হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ শ্যামল কৃষ্ণ সাহার সঙ্গে। তিনি জানান, সত্যতা পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

যশোরে অপহৃত শিশু শিবলি কুষ্টিয়ায় উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ যশোর শহরের শংকরপুরে অপহৃত শিশু আবদুর রহমান শিবলিকে (১১) কুষ্টিয়ায় উদ্ধার করছে পুলিশ। সোমবার রাতে কুষ্টিয়ার কোর্টপাড়া এলাকার একটি পানের দোকানের সামনে থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আবদুর রহমান শিবলি শংকরপুর বাসটার্মিনাল জামে মসজিদের মুয়াজ্জিন শরিকুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ জানায়, রবিবার থেকে মোবাইল ফোন ট্র্যাকিং করে অপহরণকারীদের অবস্থান জানার চেষ্টা করা হয়। সোমবার তার পিতা অপহরণকারীদের দেয়া বিকাশ নম্বরে ৬ হাজার টাকা পাঠান। ওই নম্বর নিয়ে অপহরণকারীদের খোঁজার চেষ্টা করা হয়। সোমবার রাতে অপহরণকারীরা কুষ্টিয়ার কোর্টপাড়া এলাকার একটি চায়ের দোকানের সামনে তাকে রেখে পালিয়ে যায়। কোন আসামিকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

শেরপুরে শিক্ষিকার শ্লীলতাহানি ॥ শিক্ষক জেলে

নিজস্ব সংবাদদাতা, শেরপুর, ১৩ অক্টোবর ॥ নালিতাবাড়ী উপজেলার পোড়াগাঁও আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা রেবেকা সুলতানা বকুলের দায়ের করা শ্লীলতাহানি মামলায় সহকারী প্রধান শিক্ষক সাইফুল ইসলামকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে আদালতে স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করলে উভয়পক্ষের শুনানি শেষে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বুলবুল আহমেদ জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

জানা যায়, ৪ অক্টোবর বিদ্যালয় পাঠাগারে দু’জনই অবস্থান করছিলেন। ওই শিক্ষক দু’জনের মধ্যে পূর্ব থেকেই মনোমালিন্য চলছিল। এরই জের ধরে দু’জনের মধ্যে বাক-বিত-া ও এক পর্যায়ে ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটলে অন্য শিক্ষকরা গিয়ে দু’জনকেই নিবৃত্ত করেন। ওই ঘটনায় শিক্ষিকা রেবেকা সুলতানা আহত হন।

নির্বাচিত সংবাদ
এই মাত্রা পাওয়া