২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

৭ লাখ ইয়াবার চালান আটক

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ ইয়াাবার আরও একটি বৃহৎ চালান ধরা পড়েছে। চট্টগ্রাম বন্দরে আটক এ চালানের পর মাদকদ্রব্য বিভাগ বলছে- মাদকদ্রব্যের বড় বড় চালানের জন্য সমুদ্র পথকেই বেছে নিয়েছে পাচারকারীরা। বুধবার সকালে চট্টগ্রাম বন্দর বহির্নোঙ্গর এলাকায় একটি মাছ ধরার ট্রলারে অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করা হয়েছে প্রায় ৭ লাখ ইয়াবা ট্যাবলেট। মিয়ানমার থেকে সংগ্রহ করা এই ট্যাবলেটগুলো টেকনাফ হয়ে নৌপথে নিয়ে আসা হয়েছিল চট্টগ্রামে। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের কর্মকর্তারা এ অভিযান পরিচালনা করেন।

এ বিষয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণের মুখপাত্র উত্তরা জোনের পরিদর্শক কামরুল ইসলাম বুধবার জনক›ঠকে বলেন, আগাম তথ্যের ভিত্তিতেই এ চালান আটক করা হয়। এ ধরনের আরও বড় চালান আটকের লক্ষ্যে মাদক বিভাগের একাধিক টিম চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের তৎপর রয়েছে।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর চট্টগ্রাম মেট্রো অঞ্চলের উপ-পরিদর্শক তপন কান্তি শর্মা সাংবাদিকদের জানান, এফভি মোহসেন আউলিয়া নামের একটি ফিশিং ট্রলারে অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করা হয় ইয়াবা ট্যাবলেগুলো। ট্রলারটিতে মোট ৬ লাখ ৮০ হাজার ইয়াবা পাওয়া যায়। এ ঘটনায় প্রথমে আটক করা হয় ৫ মাঝিমাল্লাকে। এরমধ্যে যাচাই বাছাই শেষে তিনজনকে ছেড়ে দেয়া হয়। যে দু’জন আটক রয়েছেন তারা হলেন- চালক ফরিদুল আলম (৪০) ও তার সহযোগী আবুল কালাম (৩৫)।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ততথ্যের ভিত্তিতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের কর্মকর্তারা জানান, মিয়ানমার থেকে সংগৃহীত এই ইয়াবা ট্যাবলেটগুলো টেকনাফ হয়ে চট্টগ্রাম বন্দর বহির্নোঙ্গরে নিয়ে আসা হয়। এরপর এগুলো খালাস করে স্থলপথে অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা ছিল তাদের। তবে যাদের আটক করা হয়েছে তারাই মূল ব্যক্তি নয়। তারা মূলত বহনকারী হিসেবে কাজ করেছে। এর নেপথ্যের মূল কারবারিদের বিষয়ে জানতে আটক এ দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

নির্বাচিত সংবাদ