২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আদালতে আত্মসমর্পণে হাইকোর্টের নির্দেশ আপীল বিভাগে স্থগিত

  • এমপি লিটনকে গ্রেফতারে আর কোন বাধা নেই

স্টাফ রিপোর্টার ॥ গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য (এমপি) মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের জন্য দেয়া হাইকোর্টের নির্দেশ স্থগিত করেছেন আপীল বিভাগের চেম্বার জজ আদালত। এর ফলে তাকে গ্রেফতারে আর কোন বাধা নেই বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী। রাষ্ট্রপক্ষের করা স্থগিত আবেদন গ্রহণ করে বুধবার সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন এই আদেশ দেন। আদেশের পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, সরকারদলীয় সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের বিষয়ে ‘আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী’ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার এমপি মঞ্জরুল ইসলাম লিটনের আত্মসমর্পণের জন্য হাইকোর্টের দেয়া নির্দেশ স্থগিত চেয়ে আবেদন করেন রাষ্ট্রপক্ষ। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম অপরদিকে লিটনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মোকছেদুল ইসলাম। এর আগে, গত সোমবার এমপি লিটনকে আগামী ১৮ অক্টোবরের মধ্যে গাইবান্ধার বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। সোমবার আগাম জামিন আবেদন শুনানি করে হাইকোর্টের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর অবকাশকালীন বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

সোমবার সকালে শিশু সৌরভের দুই পায়ে গুলি করার মামলায় লিটনের করা আগাম জামিনের আবেদনের শুনানির সময় সোমবার তাকে দুপুর একটার মধ্যে আদালতে হাজিরের নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট। পরে দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটে হাজির হন এমপি লিটন। আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মোকছেদুল ইসলাম। সঙ্গে ছিলেন এসএম আরিফুল ইসলাম। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। তার সঙ্গে ছিলেন ডেপুটি এ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিত দেবনাথ।

শুনানিতে মোকছেদুল ইসলাম বলেন, মিডিয়ায় লেখালেখি ও স্থানীয় এলাকায় বিশেষ পরিস্থিতির কারণে তিনি আত্মসমর্পণ করতে পারছেন না। আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। এ কারণে একজন এমপি হিসেবে হাইকোর্টে জামিনের জন্য এসেছি। এ্যাটর্নি জেনারেল জামিনের বিরোধিতা করে বলেন, একজন জনপ্রতিনিধি এ কাজ কিভাবে করেন। এমনকি এমপি অপরাধের বিরোধিতা করে কোন বিবৃতিও দেননি। এছাড়া আপীল বিভাগের নির্দেশনা অনুযায়ী তাকে আগাম জামিন দেয়া যায় না। তাই তাকে এখন পুলিশ হেফাজতে (কস্টডিতে) তুলে দেয়া উচিত। শুনানির একপর্যায়ে আদালত বলেন, আগে সিনেমায় দেখেছি সকাল বেলা এভাবে পাখিকে গুলি করা হতো, কবুতরকে গুলি করা হতো। এরপর আদালত লিটনের আবেদন খারিজ করে দিয়ে তাকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন। তারও আগে রবিবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আগাম জামিনের আবেদনটি জানান এমপি লিটনের আইনজীবী ।

গত ২ অক্টোবর ভোরে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার দহবন্ধ ইউনিয়নের গোপালচরণ এলাকায় এমপি লিটনের ছোড়া গুলিতে দুই পায়ে গুলিবিদ্ধ হয় গোপালচরণ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর শিক্ষার্থী শাহাদাত হোসেন সৌরভ (৮)। শিশুটি এখন রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের শিশু সার্জারি বিভাগে চিকিৎসাধীন।

আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী ব্যবস্থাÑ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ॥ সরকারদলীয় সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের বিষয়ে ‘আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী’ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। বুধবার সচিবালয়ে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘কেউ বিচারের উর্ধে নয়, বিচারকরা যেভাবে নির্দেশনা দেন আমাদের প্রশাসন ঠিক সেভাবেই কাজ করে। ‘যেই নির্দেশনা (আদালত) দিয়েছেন তা আমাদের কাছে এলে প্রশাসন সে অনুযায়ীই কাজ করবে।’