২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মিয়ানমার ফেরত ব্যক্তিরা ১০৩ দালালের নাম বলেছে ॥ অধরা গডফাদাররা

এইচএম এরশাদ, কক্সবাজার থেকে ॥ মিয়ানমার থেকে ফেরত আনা ব্যক্তিরা ১০৩ দালালের নাম বলেছে। দালাল চক্রের খপ্পরে পড়ে ভাল চাকরির আশায় মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে তারা সাগর পথে মালয়েশিয়া যাত্রা করেছিল। পরবর্তীতে গত ২১ মে সাগরে ভাসমান অবস্থায় মিয়ানমারের নৌবাহিনী ট্রলারসহ তাদের উদ্ধার করে। সোমবার দেশে ফেরত আসা ১০৩ অভিবাসন প্রত্যাশীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ১৮ জেলার ১০৩ দালালের পরিচয় শনাক্ত করেছে পুলিশ। ১০৩ দালালের মধ্যে কক্সবাজারের ২৮

মানবপাচারকারী রয়েছে। কক্সবাজারে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার ছত্রধর ত্রিপুরা জানান, মিয়ানমার থেকে ১০৩ জনকে ফেরত আনার পর কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে রাখা হয়। পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চালিয়ে ১৮ জেলার ১০৩ দালালের পরিচয় শনাক্ত করেছে। তিনি আরও জানান, ১৮ জেলার প্রত্যেক থানায় ১০৩ দালালের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে। ইতোপূর্বে যেসব দালালের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে, তাদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হচ্ছে।

মিয়ানমার থেকে ষষ্ঠ দফায় ফেরত আনা ১০৩ জনের মধ্যে ৯৭ জন নিজ নিজ বাড়ি-ঘরে ফিরে গেছেন। বুধবার সকালে কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্র থেকে প্রতারণার শিকার ওই ৯৭ ব্যক্তি বাড়ির পথে রওনা দেন। এর আগে মঙ্গলবার রাতে অপ্রাপ্ত বয়স্ক ছয়জনকে আদালতের নির্দেশনায় রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি কক্সবাজার জেলা ইউনিটের জিম্মায় নিয়ে তাদের অভিভাবকদের কাছে হস্তান্তর করেছে। সোমবার মিয়ানমারের ঢেকিবনিয়ায় এক পতাকা বৈঠক শেষে ঘুমধুম সীমান্ত দিয়ে ১০৩ জনকে ফেরত আনে বিজিবি। সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে তাদের আইওএমের সহায়তায় নিজ নিজ জিম্মায় বাড়ি পৌঁছানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে জানান আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) ন্যাশনাল প্রোগ্রাম অফিসার আসিফ মুনীর।