২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চোরাচালানকে শিশুরা অপরাধ মনে করে না

জাহাঙ্গীর আলম শাহীন, লালমনিরহাট ॥ সীমান্তে গ্রামের শিশুরা বেড়ে উঠছে অপরাধপ্রবণ পরিবেশে। সীমান্ত গ্রামের মানুষরা সবকিছু ভাগ্যের ওপর ছেড়ে দিয়ে সেখানে বসবাস করে। তারা মনে করে সীমান্তে জন্ম গ্রহণ করেছি তাই প্রতিকূল অবস্থা মেনে নিয়েই বাঁচতে হবে। এসব নিয়ে আক্ষেপ করার কিছু নেই। এসব গ্রামে শিশুরা শিক্ষা, স্বাস্থ্য সুবিধা হতে বঞ্চিত। তাই তারা শিশুকাল হতেই অপরাধপ্রবণ হয়ে ওঠে। চোরাচালান, মাদক বিক্রি তারা অপরাধ মনে করে না।

শিশুকাল হতে জীবিকা নির্বাহের উৎস হিসেবে এসব দেখে এবং শেখে। দূর্গাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছালেকুজ্জামান প্রামানিক জানান, সীমান্ত গ্রামের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও বিকল্প কর্মসংস্থান করা গেলে অপরাধ শূন্যের কোঠায় নেমে আসবে। তখন বর্তমান সরকারের যে চেষ্টা সীমান্ত হত্যা শূন্যে নামিয়ে আনা তাও সফল করা সম্ভব। মানুষ যদি নিজ এলাকায় খুব সহজে কর্মসংস্থানের সুযোগ পায়। তখন কেউ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ভারতে গিয়ে গরু পাচার, চোরাকারবারিসহ কোন অপরাধ করবে না। ক্ষুধা, দারিদ্র্য সীমান্ত মানুষকে অপরাধপ্রবণ করে তুলেছে। প্রতিদিন শতশত মোটরসাইকেল আরোহী সীমান্ত গ্রামে আসে। তারা কেন আসে। সকলেই জানে।

কিন্তু দেশের ভেতরে মানুষের চলাফেরায় নিয়ন্ত্রণ করার কোন বিধান নেই। তারপরেও মাঝে মাঝে রাস্তায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী চেকপোস্ট বসিয়ে চেকিং করে। তখন প্রায় সব আরোহী একই উত্তর দেয়। আত্মীয়ের বাড়ি বেড়াতে এসেছি। কিংবা ঘুরতে এসেছি। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কিছু করার থাকে না। কিন্তু সকলেই জানে এসব মোটরসাইকেল আরোহীর বেশির ভাগই মাদকসেবী। সীমান্তে মাদক সহজলভ্য ও দামে সস্তা হওয়ায় তারা দলে দলে এখানে আসে। সীমান্তে মাদক ব্যবসা একদিনে বন্ধ করা সম্ভব নয়। এদের বিকল্প কাজ দিতে হবে। তাদের মধ্যে মানবিক ও মানসিক বিকাশ ঘটাতে হবে। মাদক কারবার করা মানে নিজের ক্ষতি। নিজের দেশের মেধা ও যুব সমাজকে ধ্বংস করা। তবেই মাদক নিয়ন্ত্রণ সম্ভব।

লালমনিরহাট জেলায় সীমান্ত নিয়ে কাজ করে, এমন একটি সংস্থার জরিপে দেখা গেছে। সীমান্ত গ্রামে শিশু শিক্ষার হার কম। এখানে প্রাথমিক শিক্ষায় ঝরে পড়ার হারও বেশি। শিশুরা দরিদ্র বাবা-মাকে আর্থিকভাবে সহায়তা করতে গিয়ে তাদের শৈশব ও কৈশোর জীবন ভুলে গেছে। সীমান্তের শিশুরা অনেক কম বয়সে পরিপক্ব মানুষের মতো আচরণ করে। শিশুরা এখানে মাফিয়া চক্রের দাসত্ব করে।