২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ছন্দে ফিরল ব্রাজিল, বিবর্ণ আর্জেন্টিনা

ছন্দে ফিরল ব্রাজিল, বিবর্ণ আর্জেন্টিনা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অবশেষে চেনা ছন্দে ফিরেছে ব্রাজিল। তবে বিবর্ণই থেকে গেছে আর্জেন্টিনা। বিশ্বকাপ বাছাই ফুটবলে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের দ্বিতীয় পর্বের ম্যাচে সহজ জয় পেয়েছে রেকর্ড সর্বোচ্চ পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। বাংলাদেশ সময় বুধবার সকালে অনু্িষ্ঠত ম্যাচে ব্রাজিল ৩-১ গোলে পরাজিত করে ভেনিজুয়েলাকে।

সেলেসাওদের হয়ে জোড়া গোল করেন তারকা মিডফিল্ডার উইলিয়ান। এর মধ্যে চেলসি তারকা প্রথম গোলটি করেন ম্যাচ শুরুর ৩৭ সেকেন্ডে। চিলির কাছে হার দিয়ে মিশন শুরু করা ব্রাজিলের এটি প্রথম জয়। নেইমারবিহীন উইলিয়ান, অস্কার, কাকা, মিরান্ডারা জয়ে ফিরলেও দুর্দশা অব্যাহত আছে আর্জেন্টিনার। স্বাগিতক প্যারাগুয়ের সঙ্গে এবার গোলশূন্য ড্র করেছে বিশ্বকাপ ও কোপা আমেরিকার বর্তমান রানার্সআপরা। প্রথম ম্যাচে ইকুয়েডরের কাছে ২-০ গোলে হারা আর্জেন্টিনার এর মধ্য দিয়ে আরেকবার লিওনেল মেসির অভাব অনুভূত হলো।

কোপার চ্যাম্পিয়ন চিলি প্রথম ম্যাচে ব্রাজিল বধ করার পর দ্বিতীয় ম্যাচে ৪-৩ গোলে হারিয়েছে স্বাগতিক পেরুকে। পেরুর রাজধানী লিমায় অনুষ্ঠিত উত্তেজনাপূর্ণ ও উপভোগ্য ম্যাচে চিলির হয়ে দু’টি করে গোল করেন দুই তারকা অ্যালেক্সিস সানচেজ ও এডুয়ার্ডো ভারগাস। চিলির মতো টানা দুই জয় পেয়েছে উরুগুয়ে ও ইকুয়েডরও। বিশ্বকাপের প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দেয় কলম্বিয়াকে। উরুগুয়ের হয়ে গোলগুলো করেন দিয়াগো গডিন, রোলান ও হার্নান্দেজ। আর বলিভিয়াকে ২-০ গোলে হারায় ইকুয়েডর।

আগের ম্যাচে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ছিল একই কাতারে। এবার আর্জেন্টিনার হতাশার রাতে সহজ জয় পেয়েছে বাজিল। ঘরের মাঠে ভেনিজুয়েলার বিরুদ্ধে শুরুতেই এগিয়ে যায় সেলেসাওরা। কিক অফের পর প্রথম আক্রমণেই গোল পায় গত বিশ্বকাপের সেমিফাইনালিস্টরা। ৩৭ সেকেন্ডে গোল করেন উইলিয়ান। ৪২ মিনিটে আবারও উইলিয়ানের জাদু। নিজের দ্বিতীয় গোল করে ব্রাজিলকে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে রেখে বিরতিতে যান এই চেলসি তারকা। বিরতির পর ৬৪ মিনিটে স্যান্টোসের গোলে ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছিল ভেনিজুয়েলা। কিন্তু ৭৩ মিনিটে রিকার্ডো অলিভিয়েরা ব্রাজিলের হয়ে তৃতীয় গোল করলে জয় নিশ্চিত হয় স্বাগতিকদের। ম্যাচ শেষে উইলিয়ান বলেন, এটা অসাধারণ একটা ম্যাচ। আমি দুই গোল করতে পেরে খুশি। তবে দল জয়ে ফেরায় বেশি ভাল লাগছে। এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখার আপ্রাণ চেষ্টা করবো আমি। অধিনায়ক মেসির অনুপস্থিতি বেশ ভোগাচ্ছে আর্জেন্টিনাকে। প্রথম ম্যাচের মাশুল দিতে হয়েছে দিয়াগো ম্যারাডোনার দেশকে। ইনজুরির কারণে দ্বিতীয় ম্যাচে আর্জেন্টিনা মাঠে পায়নি আক্রমণভাগের আরেক প্রধান খেলোয়াড় সার্জিও অ্যাগুয়েরোকে। প্যারাগুয়ের বিরুদ্ধে এই ম্যাচেও জয়বঞ্চিত থাকতে হয়েছে দুইবারের বিশ্বকাপ জয়ীদের। গোলশূন্য ড্র করে মাঠ ছেড়েছে জেরার্ডো মার্টিনোর দল। মেসি-অ্যাগুয়েরোর অনুপস্থিতিতে আর্জেন্টিনার আক্রমণ ভাগের নেতৃত্বের ভার ছিল কার্লোস তেভেজের কাঁধে। কিন্তু তেমন জ্বলে উঠতে পারেননি ৩১ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড। প্রথমার্ধে হেড থেকে গোল করার মোক্ষম একটা সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি সাবেক ম্যানসিটি ও জুভেন্টাস তারকা। খেলা শেষ হওয়ার ১৫ মিনিট আগে স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়তে হয় এই আর্জেন্টাইন তারকাকে। প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়ের সঙ্গে সংঘর্ষে মুখে আঘাত পান তিনি। তার বদলি হিসেবে আন্তর্জাতিক ফুটবলে অভিষেক হয়েছে ২১ বছর বয়সী স্ট্রাইকার পাউলো ডাবালার।

জুভেন্টাসের এই স্ট্রাইকারও খেলা শেষ হওয়ার কিছুক্ষণ আগে নষ্ট করেন গোল করার সহজ সুযোগ। শেষ পর্যন্ত গোলশূন্য ড্রয়ের হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় আর্জেন্টিনাকে। যে কারণে টানা দুই ম্যাচ অর্থাৎ ১৮০ মিনিট গোলশূন্য থাকতে হলো মেসিহীন আকাশী-সাদা জার্সিধারীদের। ম্যাচ শেষে হতাশা ধরে রাখতে পারেননি আর্জেন্টাইন কোচ জেরার্ডো মার্টিনো। তিনি বলেন, তিন পয়েন্টের জন্য আমরা এসেছিলাম। এটা না পাওয়ায় আমরা হতাশ। এক পয়েন্টে আমি সন্তুষ্ট না। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে পরের ম্যাচেই কঠিন পরীক্ষা আর্জেন্টিনার। আগামী ১৩ নবেম্বর চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের বিরুদ্ধে খেলবে তারা।