২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইউনিলিভারের লাইফবয় লাইফসেভার ভলান্টিয়ার প্রোগ্রাম শুরু

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ইউনিসেফের হিসেব অনুয়ায়ী ডায়রিয়ার কারণে প্রতিদিন ঘণ্টায় পাঁচ বছরের কম বয়সী দুই হাজার শিশু মারা যায়। অথচ সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার মতো ছোট্ট একটি অভ্যাসই বাঁচাতে পারে এসব শিশুর জীবন। তাই শিশুদের জীবনরক্ষাকারী এ অভ্যাস শেখাতে ইউনিলিভার শুরু করেছে ‘লাইফবয় লাইফসেভার ভলান্টিয়ার প্রোগ্রাম।’ স্বেচ্ছায় এক ঘণ্টা সময় দিয়ে যে কেউ এ প্রোগ্রামে অংশ নিয়ে শিশুদের নিয়মিত সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে পারবেন। শিশুদের মধ্যে দিনে অন্তত পাঁচবার হাত ধোয়ার অভ্যাস গড়ে তোলাই প্রোগ্রামের উদ্দেশ্য।

বুধবার রাজধানীর বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটিতে এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এই কর্মসূচী শুরু হয়। বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস-২০১৫ উপলক্ষে ইউনিলিভারের অন্যতম ব্র্যান্ড লাইফবয় সোপ এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। দেশজুড়ে ৫২ জেলার বিভিন্ন স্কুলে পরিচালিত এ কার্যক্রমে লাইফবয় স্কুল অব ফাইভ টিমের সঙ্গে শিশুদের নিয়মিত হাত ধোয়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে কাজ করবেন ভলান্টিয়াররা। অনুষ্ঠানে কমিক বুক, পাজল, গল্প ও খেলাধুলার মাধ্যমে একদল শিশুকে হাত ধোয়ার বিভিন্ন উপকারের কথা তুলে ধরা হয়।

অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট শিল্পী মুস্তাফা মনোয়ার বলেন, সাবান যে শুধু বিক্রি করার জন্য নয়, বরং জনসেবার মানসিকতায় এগিয়ে এসেও পণ্যের প্রসার ঘটানো যায়; লাইফবয় সেই দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। তবে শুধু হাত ধুয়ে কোন লাভ নেই। বাচ্চারা হাত দিয়ে ছবি আঁকবে, হাতে রং লাগাবে। সেই রং ছড়িয়ে দেবে সবার চোখে, তারপরই হাত ধোবে। তিনি বলেন, আমাদের সব শিশুই যেন বেঁচে থাকে, কেউ যেন পাঁচ বছর বয়সের আগে মারা না যায়। সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা গীতিআরা সাফিয়া চৌধুরী বলেন, শিশুদের মধ্যে হাত ধোয়ার অভ্যাস তৈরির উদ্যোগ অত্যন্ত প্রশংসনীয়। হৃদয় দিয়ে অনুভব করার ফলেই এ ধরনের কার্যক্রম চালু রাখা সম্ভব। বর্ষীয়ান অভিনেতা আলী জাকের বলেন, ব্যবসা থাকলে লাভও থাকবে। কিন্তু এর সঙ্গে মানবসেবার মানসিকতা যোগ করলে ব্যবসা হয়ে যায় মানবকল্যাণমুখী। ১৯৭২ সাল থেকে ইউনিলিভার এদেশে কাজ করছে। মানুষের কল্যাণের বিষয়টি ইউনিলিভারকে ভাবিত করে। এ জন্য ইউনিলিভার শুধু বাংলাদেশেই নয়, বিশ্বের নামী ব্র্যান্ড। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের একটি ভিডিওচিত্র প্রচার করা হয়। এতে সাকিব বলেন, প্রতি বছর ১ দশমিক ৭ মিলিয়ন (১৭ লাখ) শিশু ডায়রিয়াজনিত কারণে মারা যায়। অথচ সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার অভ্যাসের মাধ্যমে বিশ্বে শিশু মৃত্যুর হার কমিয়ে আনা সম্ভব। লাইফবয় লাইফসেভার ভলান্টিয়ার প্রোগ্রামের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে হাত ধোয়া কার্যক্রমে সবাইকে যুক্ত হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্র্যান্ড বিল্ডিং ডিরেক্টর জাভেদ আকতার, নারায়ণগঞ্জ বন্দর কলাবাগ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সানজিদা ইসলাম, ‘লাইফবয় লাইফসেভার’ খ্যাত চট্টগ্রামের শিশু শিক্ষার্থী শান্ত দাশ প্রমুখ।