২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শাহবাগের ২০ দোকান থেকে ভেজাল ওষুধ উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ভেজালের যুগে অন্তত শাহবাগের ওষুধের দোকানগুলো নগরবাসীর কাছে ছিল আস্থার প্রতীক। যেখানে কোন নিষিদ্ধ বা মেয়াদহীন ওষুধ থাকবে না এমন বিশ্বাস নিয়ে দূর-দূরান্ত থেকে মানুষ ছুটে আসে এখানে। বুধবার র‌্যাব যখন অভিযান চালায়, তখন উত্তরা থেকে ওষুধ কিনতে আসা হাসান বললেন, এখানেও যদি ভেজাল ওষুধ বিক্রি করা হয় তাহলে আর যাবো কোথায়?

হাসান নিজে চেয়ে চেয়ে দেখলেন কিভাবে আজিজ সুপার মার্কেটের ২০টি দোকানে অভিযান চালিয়ে জব্দ করা হয় লাখ লাখ টাকার অনুমোদনহীন ও নিষিদ্ধ ওষুধ। তাৎক্ষণিক ১১ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

বুধবার বিকেলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের সহায়তায় র‌্যাব-৩ এই অভিযান পরিচালনা করে। এতে নেতৃত্ব দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলম।

তিনি জানান, দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত শাহবাগের আজিজ মার্কেট এবং এর পাশের ২০টি ফার্মেসিতে অভিযান চালিয়ে ভেজাল ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রি-মজুদের দায়ে জরিমানা করা হয়েছে।

এ সময় বিপুল পরিমাণ ওষুধ জব্দ করে তা নষ্ট করে ফেলা হয়। যে সব প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়েছে সেগুলো হলোÑইসমাইল ড্রাগস, সরকার ফার্মেসি, ভাইভাই ফার্মেসি, ফরিদপুর ফার্মেসি, আরবি ফার্মেসি, দৃষ্টান্ত ফার্মেসি, কাজী ফার্মেসি, মেডিসিন গার্ডিয়ান, জনপ্রিয় ফার্মেসি, শামীম ফার্মেসি, এ টু জেড ফার্মেসি, কেরানীগঞ্জ মেডিক্যাল, গ্লোবাল ফার্মেসি, আলীজ ফার্মেসি, মজুমদার ফার্মেসি, ভুইয়া ফার্মেসি, সিলেট ফার্মা, আপন ফর্মা, অভি ড্রাগস, সেবা মেডিক্যাল, ও সায়েন্স গার্জিয়ান।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্র্যাট সারোয়ার আলম জনকণ্ঠকে বলেন, এসব স্টোরে বেশিরভাগই ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ ও ক্যান্সারের মতো জটিল ব্যাধির ওষুধ অবৈধভাবে বিক্রি করা হতো। এগুলোর মধ্যে ভেটনোভেট সি- ভেটনোভেট এন, ট্রিপটন, আরজিপ্রেস, ডাইলোপ্রক্সোন, ও হিডরা অন্যতম। এ সব ওষুধের কিছু আছে ওষুধ প্রশাসনের অনুমোদনবিহীন, কিছু আছে নিষিদ্ধ আর কিছু আছে মেয়াদোত্তীর্ণ। মূলত এ তিন ক্যাটাগরিতেই এসব ফার্মেসিকে আর্থিক জরিমানা ও ওষুধ জব্দ করা হয়।