২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গাইবান্ধায় এমপি লিটনের রিমান্ডের প্রতিবাদে আ’লীগের বিক্ষোভ মিছিল

গাইবান্ধায় এমপি লিটনের রিমান্ডের প্রতিবাদে আ’লীগের বিক্ষোভ মিছিল

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা ॥ গাইবান্ধার এডিশনাল চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ময়নুল হাসান ইউসুফ সুন্দরগঞ্জের এমপি লিটনের জামিনের আবেদন এবং পুলিশের ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন না মঞ্জুর করে তাকে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে পুলিশ কর্তৃক আদালতে হাজির করার সময় এমপি লিটনের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও তার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী ও ওই উপজেলার নারী-পুরুষ ব্যানার ও ফেষ্টুন নিয়ে গাইবান্ধা জেলা শহরের প্রধান প্রধান সড়কে বিক্ষোভ মিছিল করে এবং জেলা প্রশাসক ও জেলা জজ অফিস সংলগ্ন গাইবান্ধা-পলাশবাড়ি সড়ক অবরোধ করে রাখে। এতে গুরুত্বপূর্ণ ওই সড়কটিতে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায় এবং জনগণকে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হয়। এসময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ প্রথমে লাঠিচার্জ, ৫০ রাউণ্ড রাবার বুলেট ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে বিক্ষোভ মিছিল ও অবরোধকারিদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। অবরোধকারিদের ছত্রভঙ্গ করে দিয়ে পুলিশ ৪টি পিকঅ্যাপ সাইরেন বাজিয়ে স্কট করে ডিবি অফিস থেকে আদালত চত্বরে এমপি লিটনকে নিয়ে আসে। এসময় সাংবাদিকদের কোন ছবি তোলারও সুযোগ দেয়নি পুলিশ। পুলিশের লাঠিচার্জ, টিয়ারসেল ও রাবার বুলেটে ১৭ জন নেতাকর্মী আহত হয় বলে সুন্দরগঞ্জ আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ জানান। এদিকে এসময় লিটন বিরোধী গ্র“পের কোন উপস্থিতি বা তৎপরতা পরিলক্ষিত হয়নি।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা ২০ মিনিটে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা অফিস থেকে ডিবি পুলিশের একটি দল এমপি লিটনকে গাইবান্ধা পুলিশ সুপার অফিস সংলগ্ন গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কার্যালয়ে নিয়ে আসে। এদিকে ভোর থেকেই এমপি লিটনকে গাইবান্ধা চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে হাজির করা উপলক্ষ্যে ব্যাপক পুলিশি নিরাপত্তা বাড়ানো হয়। এমনকি জলকামানও মোতায়েন করা হয়। জেলা প্রশাসক ও জেলা জজ আদালতে সাধারণ মানুষের প্রবেশও নিষিদ্ধ করা হয়। এছাড়া পুলিশ এমপি লিটনকে ঘেরাও করে আদালতের এজলাসে তোলে এবং রায় প্রদান শেষে সেখান থেকে বেরিকেড দিয়ে জেলহাজতে নিয়ে যায়।

জানা গেছে, শিশু শাহাদত হোসেন সৌরভকে গুলি করে আহত করা মামলার আসামি গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনকে ঢাকা উত্তরা থানার তার বড় বোন জান্নাতুল আকতার পুষ্প এর বাসা থেকে বুধবার রাতে গ্রেফতার করা হয়।

এমপি লিটনকে আটক করে জামিন না মঞ্জুর করার ঘটনায় আহত সৌরভের বাবা সাজু মিয়া রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে সাংবাদিকদের মোবাইল ফোনে জানান, এতে তিনি খুশি হয়ে সন্তোষ প্রকাশ করলেও অজানা ভয়ে ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছেন বলে জানান। কেননা এতে তার উপর এমপি লিটনের সমর্থকরা হামলা করতে পারে বলেও আশংকা করছেন তিনি। এদিকে সৌরভের মা জানান, হাসপাতালে চিকিৎসা করতে গিয়ে তারা এখন চরম আর্থিক সংকটে ভূগছেন।

এদিকে এমপি লিটনের জামিন না মঞ্জুর করায় সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগের যৌথ উদ্যোগে আগামী রোববার সুন্দরগঞ্জে রেলপথ, সড়ক পথ ও নদী পথ অবরোধ এবং বিক্ষোভ মিছিলসহ বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল চত্বরে লাগাতার অবস্থান ধর্মঘটের কর্মসূচী পালনের ডাক দিয়েছে। তাকে মুক্তি না দেয়া পর্যন্ত সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠন সমূহ লাগাতার আন্দোলনের কর্মসূচী অব্যাহত রাখবে বলে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রবীণ নেতা গোলাম মোস্তফা আহমেদ গাইবান্ধা প্রেসক্লাবে এসে উপস্থিত সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

উল্লে¬খ্য, গাইবান্ধার-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য মো. মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের ছোঁড়া গুলিতে শুক্রবার ভোরে সৌরভ মিয়া (৯) নামে এক শিশু গুরুতর আহত হয়েছে। আশংকাজনক অবস্থায় সৌরভ রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।