২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সব রিপাবলিকান প্রার্থীকে কিনতে পারেন ট্রাম্প!

আমি আসলেই ধনী ‘এ কথা ডোনাল্ড ট্রাম্পের। তিনি ২০১৬ এর মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবালিকান পার্টির অগ্রগামী প্রার্থী। ট্রাম্পের মতে, তিনি ধনীতন্ত্র বলেই লোকজনের উচিত তাকে ভোট দেয়া। তিনি ধনী যে, তিনি ধনাঢ্য দাতাদের তোষামোদ করেন না, এতই ধনী যে, তিনি অন্যসব রিপাবলিকান প্রার্থীকে এক জোটে কয়েকবার বেচাকেনা করতে পারেন। কত ধনী? নিট সম্পদের মূল্য প্রায় ১ হাজার কোটি ডলার বলে দাবি করেন ট্রাম্প। ফর্বস বলছে, এটা সাড়ে চার শ’ কোটি ডলার হতে পারে। যাই হোক, প্রেসিডেন্ট পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন এমন ব্যক্তিদের মধ্যে ট্রাম্পই সবচেয়ে ধনী তিনি রস পেরো ও স্টিভ ফর্বস ও মিট রোমানির চেয়েও ধনী। ট্রাম্প ডেস মেইনস রেজিস্টারকে বলেন, আমার এক গুচি স্টোর রয়েছে যেটির দাম রোমনির চেয়েও বেশি। ট্রাম্প বলেন, একজন ডেভেলপার হিসাবে তিনি নির্মাণ শ্রমিক ও অন্যান্য শ্রমিকের সঙ্গেই লেনদেন করেই জীবন কাটিয়েছেন। কাজেই তার ভাগ্য কখনও বিড়ম্বনার মধ্যে পড়েনি। তিনি বলেন, তারা আমাকে তাদেরই একজন ভাবেন এবং আমিও নিজেকে তাদেরই একজন ভাবি। ওয়াশিংটন পোস্ট

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের সঙ্গে শান্তিচুক্তি

মিয়ানমারের আটটি সশস্ত্র নৃগোষ্ঠীর সঙ্গে শান্তিচুক্তি করেছে দেশটির সরকার। তবে চুক্তির বাইরে রয়েছে সবচেয়ে সক্রিয় সাতটি বিদ্রোহী গোষ্ঠী। দেশটির রাজধানী নেপিডোয় বৃহস্পতিবার শান্তিচুক্তিটিতে স্বাক্ষর করা হয়েছে। প্রায় দুই বছর ধরে শান্তি আলোচনার পর এই চুক্তি হলো। খবর বিবিসি ও ওয়েবসাইটের

১৯৪৮ সালে ব্রিটিশদের কাছ থেকে স্বাধীন হওয়ার পর বৃহত্তর স্বায়ত্তশাসন দাবি করা বিভিন্ন নৃতাত্ত্বিক বিদ্রোহী গোষ্ঠীর সঙ্গে অনেক দিন ধরেই মিয়ানমার সরকারের সশস্ত্র সংঘাত চলছে। মিয়ানমার সরকার এই চুক্তিকে চূড়ান্ত রাজনৈতিক মীমাংসার প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে দেখছে। মধ্যস্থতাকারীরা বলছে, যে সাতটি গোষ্ঠী শান্তিচুক্তি স্বাক্ষর করেনি, তাদের সঙ্গে দূরত্ব খুব বেশি নয়। তারা একটি খসড়া চুক্তিতে সম্মত হয়েছে। শান্তিচুক্তি স্বাক্ষর না করা গোষ্ঠীগুলোর মধ্যে রয়েছে ইউনাইটেড ওয়া স্টেট আর্মি (ইউডব্লিউএসএ) এবং কোচিন ইনডিপেনডেন্স অর্গানাইজেশন (কেআইও)।