১১ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অতিরিক্ত কমিশনার থেকে কনস্টেবল পর্যন্ত নতুন যোগ হচ্ছে ১২৯৪

অতিরিক্ত কমিশনার থেকে কনস্টেবল পর্যন্ত নতুন যোগ হচ্ছে ১২৯৪
  • সিএমপির জন্য বিপুল জনবল অনুমোদন

মোয়াজ্জেমুল হক, চট্টগ্রাম অফিস ॥ অবশেষে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মহানগরীর আইনশৃঙ্খলা রক্ষার সুবিধার্থে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) জন্য বাড়তি আরও ১২৯৪ জনবল বৃদ্ধির চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়েছে। ১৪ অক্টোবর তা গেজেট আকারে প্রকাশিত হয়েছে। বর্তমানে ১৬টি থানা নিয়ে গঠিত সিএমপির জনবল রয়েছে পুলিশ কমিশনার থেকে কনস্টেবল পর্যন্ত ৫৭৯৯। সরকার নতুনভাবে আরও ১২৯৪ জনের অনুমোদন দেয়ায় তা ৭০৯৩ তে উন্নীত হলো। একসঙ্গে এত বিপুলসংখ্যক জনবল বৃদ্ধি অতীতে আর কখনও হয়নি।

সিএমপি সূত্রে জানানো হয়, এ মহানগরীর জনসংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে মিল রেখে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার কাজে সিএমপির জনবল কাজ করলেও তা কাক্সিক্ষত পর্যায়ে সফলতা আসছিল না। এ অবস্থায় দফায় দফায় জনবল বৃদ্ধির সুপারিশ পাঠানো হয় সরকারের উচ্চ পর্যায়ে। আইজি একেএম শহীদুল হক বিষয়টি নিয়ে সরকারের সঙ্গে দেন দরবার চালিয়ে শেষ পর্যন্ত বিপুল পরিমাণ জনবল বৃদ্ধির বিষয়টি অনুমোদন করাতে সক্ষম হন বলে সূত্রে জানানো হয়। বর্ধিত জনবলের চিত্র অনুযায়ী একজন কমিশনারের পর দুই এডিশনাল কমিশনারের সঙ্গে আরও একজন, ১০ উপ কমিশনারের সঙ্গে আরও ২, অতিরিক্ত ১৫ উপ-পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে আরও ৮, ২৪ সহকারী পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে আরও ৭, ১০৭ ইন্সপেক্টরের সঙ্গে আরও ১৫, সাব ইন্সপেক্টর ৬২৬ জনের সঙ্গে আরও ২শ’, এএসআই ৫২২ জনের সঙ্গে আরও ২৭০ এবং ৫ হাজার কনস্টেবলের সঙ্গে আরও ৭শ’ জন নিয়োগ দিয়ে মোট জনবল ৭০৯৩ তে উন্নীত করা হয়েছে।

এদিকে, বর্তমান সিএমপির ১৬ থানার স্থলে আরও ৪টি থানা বৃদ্ধির যে প্রস্তাব রয়েছে তা এখনও অনুমোদিত হয়নি। সিএমপি সূত্র আশা করছে, সীতাকুন্ড, হাটহাজারী, বোয়ালখালি, আনোয়ারা, পটিয়ার কিছু অংশ নিয়ে এসব নতুন থানা প্রতিষ্ঠা করার জন্য সিএমপির পক্ষ থেকে সরকারের কাছে প্রস্তাব করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, সিএমপির উচ্চপর্যায়ের পদসমূহে জনবল বৃদ্ধির পাশাপাশি মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা পর্যায়েও অনুরূপভাবে পুলিশ সদস্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত সংস্থার কার্যক্রমে গতিশীলতা বৃদ্ধি পাবে বলে কর্মকর্তারা আশাবাদী। সম্প্রতি চট্টগ্রাম মহানগরী আইনশৃঙ্খলাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যাপকভাবে গুরুত্ব বহন করছে। এক্ষেত্রে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশের জনবল বৃদ্ধির প্রস্তাবটি দীর্ঘদিনের। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাসহ রাজনৈতিক কর্মকা- এবং অন্যান্য নিয়মিত কার্যক্রম পরিচালনায় সিএমপি প্রশাসনকে রীতিমতো হিমশিম খেতে হয়।

১৯৭৮ সালে ৬ থানা নিয়ে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের যাত্রা শুরু হয়। তখন এ সংস্থার জনবল ছিল ৩৭০০। সে সময়ে এ নগরীর জনসংখ্যা ছিল সর্বোচ্চ ১০ লাখ। বর্তমানে তা ৫০ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এ অবস্থায় এ নগরীর আইনশৃঙ্খলা রক্ষা, ট্রাফিক ব্যবস্থা, ভিআইপিদের প্রটোকল দেয়াসহ বিভিন্ন পুলিশী কার্যক্রমে এ সংখ্যা অপ্রতুল হয়ে দাঁড়ায়। বর্তমানে এ নগরীতে অবস্থানরত বিদেশী এবং কেপিআইগুলোকে নিয়মিতভাবে পুলিশী প্রহরায় রাখা হচ্ছে। সেক্ষেত্রে অপ্রতুল জনবল দিয়ে সিএমপিকে কঠিন সমস্যার মোকাবিলা করে যেতে হচ্ছে।