২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জানুয়ারি থেকে চার দেশের মধ্যে যাত্রী ও পণ্যবাহী যান চলাচল শুরু

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নতুন বছরের শুরু থেকে বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত ও নেপালসহ চার দেশের মধ্যে সড়কপথে যাত্রী ও পণ্যবাহী যান চলাচল শুরু হবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এ লক্ষে ১৪-২৮ নবেম্বর অনুষ্ঠিত হবে মোটর শোভাযাত্রা।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে প্রতিবেশী এই চার দেশে যানবাহন চলাচলের অগ্রগতি নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী বলেন, আগামী জানুয়ারি থেকে চার দেশে আনুষ্ঠানিকভাবে যান চলাচল শুরু হবে। রুট সার্ভে শেষ হওয়ার পর জানুয়ারি মাসে একটি দিন ঠিক করা হবে উদ্বোধনের জন্য। আনুষ্ঠানিকভাবে যান চলাচল শুরুর আগে নবেম্বরের মধ্যে যানবাহনের পরীক্ষামূলক চলাচল হবে বলে জানান তিনি।

নেপাল ছাড়া তিনটি দেশ ইতোমধ্যে এ বিষয়ে চূড়ান্ত অনুমতি দিয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, নেপাল সরকারও শীঘ্রই অনুমোদন দেবে বলে আশা করি। তাহলে পুরো প্রক্রিয়া এগিয়ে নিতে আর বিলম্ব হবে না। সকলের স্বার্থেই এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

চুক্তির আওতায় যান চলাচলের জন্য সংশ্লিষ্ট দেশ নিজেদের নির্ধারিত হারে ‘ট্রানজিট ফি’ আদায় করবে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশ কি হারে এই ফি আদায় করবে তা খুব দ্রুত নির্ধারণ করা হবে। ফি ছাড়া এক দেশের গাড়ি অন্য দেশে চলতে পারবে না। এতে সব দেশের বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি বাড়বে।

মন্ত্রী জানান, চার দেশের ফ্রেন্ডশিপ মোটর র‌্যালি আগামী ১৪ নবেম্বর ভারতের উড়িষ্যা রাজ্যের ভুবনেশ্বর থেকে শুরু হয়ে বিহারের রাঁচি, পাটনা, নেপালের কাঠমান্ডু, বিরাটনগর, ভুটানের ফুয়েন্টসোলিং, থিম্পু, ভুমথাং, মঙ্গার, ভারতের আসামের গৌহাটি, শিলচর, ত্রিপুরার আগরতলা হয়ে ২৮ নবেম্বর আখাউড়া অথবা ফেনীর বিলোনিয়া সীমান্ত হয়ে বাংলাদেশে ঢুকবে।

মোটর শোভাযাত্রাটি চট্টগ্রাম হয়ে ঢাকায় আসবে। ২৯ নবেম্বর ঢাকায় একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। পরদিন ঢাকা থেকে ভারতের কলকাতার উদ্দেশে যাত্রা করে শোভাযাত্রা বেনাপোল সীমান্ত অতিক্রম করে ভারতের কলকাতায় গিয়ে শেষ হবে।