২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘সার্বিকভাবে আমরা ভালই খেলেছি’

‘সার্বিকভাবে আমরা ভালই খেলেছি’

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে কিরগিজস্তানের বিপক্ষে ফিরতি লেগের ম্যাচ খেলে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। বুধবার রাত ৯টায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মামুনুলদের বহনকারী বিমানটি অবতরণ করে। কিরগিজদের বিপক্ষে ভাল খেলেও হেরে যাওয়ায় হতাশ অধিনায়ক মামুনুল ইসলাম।

কিরগিজস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশ দলের ম্যাচটি ছিল ইতালিয়ান কোচ ফাবিও লোপেজের প্রথম এ্যাসাইনমেন্ট। সে ম্যাচে ২-০ গোলে হারলেও মামুনুলদের লড়াকু মনোভাব দেশের ফুটবল সমালোচকদের নজর কেড়েছে। তবে ফুটবল তো ফলনির্ভর খেলা। তাই সবকিছু ছাপিয়ে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে আরও একটি হারের কারণ কী- এ প্রশ্নটি মুখ্য হয়ে উঠেছে। নতুন কোচের অধীনে মানিয়ে নিতে সমস্যা, নাকি পারফর্মেন্সে ছিল কোন ঘাটতি? এ বিষয়ে দলের অধিনায়ক মামুনুল বলেন, ‘কোচ আমাদের যেভাবে পরিচালনা করেছেন আমরা সেভাবেই খেলেছি। আসলে হেরে যাওয়াটা কেউ মেনে নিতে পারে না।’ তবে বিশকেকের মাঠ থেকে পাওয়া হারের তিক্ততা পেছনে ফেলে মামুনুলরা তাকাচ্ছেন সামনে। বিশ্বকাপ বাছাই ও সাফের ম্যাচকে সামনে রেখে নিজেদের প্রস্তুতির জন্য আসন্ন শেখ কামাল টুর্নামেন্টে খেলার আকুতিও ছিল অধিনায়কের কণ্ঠে। দলের সবাই ফিরলেও ব্যক্তিগত কারণে দলের সঙ্গে ফেরেননি কোচ লোপেজ। এর আগে প্রথম লেগে গত ১১ জুন বাংলাদেশ কিরগিজদের বিপক্ষে হেরেছিল ৩-১ গোলে। আর ফিরতি লেগের এ হারের ফলে এশিয়া অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে গ্রুপ ‘বি’-এর তলানিতেই পড়ে রইল বাংলাদেশ। ৫ ম্যাচ শেষে ‘বেঙ্গল টাইগার্স’দের সংগ্রহ মাত্র ১ পয়েন্ট। ‘বুধবার রাতে দেশে ফিরে আজ (বৃহস্পতিবার) সারাদিন বিশ্রামে ছিলাম। ওখানে যতদিন ছিলাম, ততদিনই খাওয়া নিয়ে কিছুটা সমস্যায় পড়তে হয়েছিল। ওখানকার খাবার বেশিরভাগই কাঁচা টাইপের। ঠা-া আবহাওয়া নিয়েও শুরুতে সমস্যা হয়েছে; ১০-১৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস। তবে আমরা মানিয়ে নিতে পেরেছিলাম। ম্যাচে খেলতে কোন সমস্যা হয়নি বা নিঃশ্বাস নিতে অসুবিধে হয়নি। খেলা শেষ হওয়ার পরও মনে হয়েছে আরও অনেকক্ষণ খেলতে পারতাম’- জনকণ্ঠের সঙ্গে আলাপচারিতায় জানান জাতীয় ফুটবল দলের তরুণ ফরোয়ার্ড তকলিস আহমেদ। হারলেও দলের খেলায় কোচ লোপেজ সন্তুষ্ট বলে জানান সম্প্রতি শেখ জামাল ধানম-ি থেকে চট্টগ্রাম আবাহনী লিমিটেডে যোগ দেয়া তকলিস। কিরগিজদের বিপক্ষের ম্যাচ প্রসঙ্গে তকলিস বলেন, ‘আমরা ওই ম্যাচে দ্বিতীয়ার্ধে বেশি ভাল খেলেছি। মামুনুল ভাইয়ের একটি শট ৭০ মিনিটে লক্ষ্যভ্রষ্ট না হলে আমরা ম্যাচটায় ১-১ গোলে ড্র করতে পারতাম। দুটো গোলই আসলে হজম করেছি নিজেদের ভুলে। দুটি গোলই ওরা আমাদের কাছ থেকে উপহার হিসেবেই পেয়েছে বলতে পারেন।’ কিরগিজস্তানে যাওয়ার আগে বিকেএসপিতে অনুশীলেেনর সময় লোপেজ ফুটবলারদের ভিন্ন পজিশনে খেলিয়ে সংবাদের শিরোনাম হয়েছিলেন। বিশকেকের এ্যাওয়ে ম্যাচে কি সেটাই ঘটেছে? তকলিস বলেন, ‘হ্যাঁ, আমরা সবাই যে পজিশনে খেলে অভ্যস্ত, কোচ বিশকেকের ম্যাচে অনেককেই সেই পজিশনে খেলাননি। আসলে আমরা সবাই পরিণত, অনুশীলনে ভিন্ন পজিশনে খেলতে প্রথমে সমস্যা হলেও পরে তা হয়নি। ম্যাচেও হয়নি। সবাই ভাল খেলেছে। ম্যাচে আমরা হারলেও সামগ্রিকভাবে আমরা ভালই খেলেছি। কিরগিজরা গোলশূন্য ড্র করেছে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা জর্দানের সঙ্গে। এছাড়া দ্বিতীয় স্থানে থাকা অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরেছে ২-১ গোলে। সেই দলের কাছে, তাদের মাটিতে ৩০ হাজার দর্শকদের সামনে ২-০ গোলে হারটা অনেক ভাল ফলই।’ দেশে ফেরার পর আবার ক’দিনের মধ্যেই শুরু হতে যাচ্ছে মামুনুলদের ক্যাম্প। তকলিস জানান, ‘শুনেছি আমাদের পরবর্তী ক্যাম্প হতে পারে কক্সবাজারে।’

আগামী ২০-৩০ অক্টোবর চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হবে ‘শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট।’ ইচ্ছে থাকলেও এ আসরে স্বাগতিক চট্টগ্রাম আবাহনীর হয়ে খেলতে পারছেন না তকলিস- ‘ক্লাব আমাকে খেলার অনুমতি দেয়নি। খেললে ভাল হতো। এতবড় একটা টুর্নামেন্ট, খেললে আমাদের জন্য ভাল একটি প্রস্তুতি হতো।’