১৫ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অধিনায়কসহ নেপালের পাঁচ ফুটবলার গ্রেফতার

  • ম্যাচ পাতানোর অভিযোগ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ম্যাচ পাতানোর দায়ে সাবেক আর বর্তমান মিলিয়ে নেপালের পাঁচজন ফুটবলারকে গ্রেফতার করেছে দেশটির পুলিশ। এর মধ্যে বর্তমান জাতীয় দলের অধিনায়ক সাগর থাপাও রয়েছেন। অধিনায়ক সাগর ছাড়া অন্য খেলোয়াড়রা হলেন- সন্দ্বীপ রাই, রিতেশ থাপা, বিকাশ সিং ছেত্রি ও অঞ্জন কেসি। ২০০৮ সাল থেকেই ম্যাচ পাতানোর সঙ্গে জড়িত রয়েছেন তারা- এমন অভিযোগ থাকার ভিত্তিতেই তাদের আটক করা হয়েছে বলে বৃহস্পতিবার নিশ্চিত করেছেন মেট্রোপলিটন পুলিশ ক্রাইম বিভাগের এসএসপি সারবেন্দ্র খানাল। এ বিষয়ে খানাল বলেন, ‘খেলোয়াড়দের ব্যাংক এ্যাকাউন্ট প্রাথমিকভাবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে আমরা মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুরের বাজিকরদের সঙ্গে তাদের যোগাযোগের বিষয়ে তথ্য পেয়েছি। এতে প্রমাণিত হয়েছে অন্য দেশের বাজিকর ও জুয়াড়িদের সঙ্গে এই খেলোয়াড়দের বেশ ঘনিষ্ঠ যোগসূত্র রয়েছে।’ খানাল আরও জানিয়েছেন, তদন্ত এখনও প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। তবে অল নেপাল ফুটবল এ্যাসোসিয়েশনের আরও কোন ফুটবলার এর সঙ্গে জড়িত কিনা- এ ব্যাপারে মুখ খুলতে রাজি হননি খানাল। এ ব্যাপারে ফুটবল এ্যাসোসিয়েশনের কারও বক্তব্যও তাৎক্ষণিকভাবে পাওয়া যায়নি। সাবেক সভাপতি গণেশ থাপার অধীনে আর্থিক বিষয়াদি নিয়ে নেপাল ফুটবল এ্যাসোসিয়েশনে গরমিল দেখা দিলে ফিফার পক্ষ থেকে গত বছর তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। তারপর থেকেই নেপালী ফুটবলে কালোছায়া নেমে আসে। ফিফার তদন্তের পর থেকে দীর্ঘদিনের সভাপতি ও জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক গণেশ থাপা কোর্টের সঙ্গে লড়াই করে চলেছেন। এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের সাবেক সহসভাপতি থাপা এ সময় সভাপতির পদ থেকেও সরে দাঁড়ান। ফিফার পক্ষ থেকে ১২০ দিনের জন্য সব ধরনের ফুটবলীয় কার্যক্রম থেকে তাকে নিষেধ করা হয়। এখন পর্যন্ত এ ঘটনায় কোন আদেশ দেয়নি বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা এথিকস কমিটি। তবে বর্তমানে এই এথিক্স কমিটি ফুটবলে দুর্নীতি নিয়ে ব্যাপক কার্যকরী ভূমিকা রাখছে। সম্প্রতি ফুটবলের দুই রাঘববোয়াল ফিফার সভাপতি সেপ ব্লাটার এবং উয়েফার প্রধান মিশেল প্লাতিনিকে তিন মাসের জন্য নিষিদ্ধ করেছে।