২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পারস্পরিক সহযোগিতা নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে টেকসই উন্নয়ন সম্ভব ॥ স্পিকার

অনলাইন ডেস্ক ॥ জাতীয় সংসদের স্পিকার ও সিপিএ নির্বাহী কমিটির চেয়ারপার্সন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সহযোগিতা পারস্পরিক উন্নয়নে অনবদ্য ভূমিকা পালন করে। পারস্পরিক সহযোগিতা নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে টেকসই উন্নয়ন সম্ভব।

শিরীন শারমিন চৌধুরী আজ চীনের বেইজিংয়ে চীনের কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটি আয়োজিত সিল্করোড বিষয়ক এশিয়ার রাজনৈতিক দলগুলোর বিশেষ সম্মেলনের সমাপনী পর্বে বক্তৃতাকালে একথা বলেন।

স্পিকার বলেন, বাংলাদেশ নিবিড় ও গতিশীল অর্থনৈতিক উন্নয়নের মাধ্যমে এ দেশের মানুষের জীবনমান উন্নয়নে বদ্ধপরিকর। অর্থনৈতিক উন্নয়ন নিশ্চিতকরণে সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, এই সম্মেলন বিভিন্ন বিষয়ে সকলের দৃষ্টিভঙ্গির নতুন দিগন্ত উন্মোচন করেছে। এটি এ অঞ্চলের গতিশীল রাজনৈতিক নেতৃত্ব সৃষ্টিতে এবং এ অঞ্চলের জনগণের মধ্যেকার সেতুবন্ধন আরো সুদৃঢ় করবে যা অর্থনীতির চাকাকে সচল রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এ লক্ষ্যে এ অঞ্চলের প্রত্যেকটি দেশকে আঞ্চলিক সহযোগিতার মাধ্যমে একযোগে কাজ করতে হবে।

শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষেত্রসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি সাধন করেছে। এই উন্নয়নের অগ্রযাত্রা শুধুমাত্র অর্থনৈতিক উন্নয়নের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই বরং এটি নারীদের অগ্রগতি ও কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে, স্বাস্থ্য ও শিক্ষার মান উন্নয়নে, সর্বোপরি মানবসম্পদ উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। এর ফলে বাংলাদেশ ইতোমধ্যে নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশ হিসাবে নিজেদের অবস্থানকে আরো সুদৃঢ় করবে।

তিনি আরো বলেন, দারিদ্র্য দূরীকরণ, সামাজিক নিরাপত্তা প্রদান, দুর্যোগ ঝুঁকি ও জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবিলা, অনানুষ্ঠানিক শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সচেতনতা প্রদান, খাদ্য নিরাপত্তা, টেকসই উন্নয়ন, প্রযুক্তি উন্নয়ন এবং নারীদের অর্থনৈতিক উন্নয়নের মূলধারায় সম্পৃক্ত করতে সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে।

স্পিকার বলেন, গ্রান্ডট্রাঙ্ক রুটের মত সিল্করুটও আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের নিকটবর্তী প্রতিবেশী দেশগুলোর সাথে এই সিল্ক রুটের মাধ্যমেই যোগাযোগ হতো। কালের পরিক্রমায় এটা এখন শুধু রাস্তাই নয় সেতুবন্ধনের নিদর্শন হিসাবে দাঁড়িয়েছে।

স্পিকারের নেতৃত্বে সংসদীয় প্রতিনিধি দলের সদস্য হিসেবে রয়েছেন দশম জাতীয় সংসদের ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমদ, সংসদ সদস্য পংকজ নাথ, আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী ও নূরজাহান বেগম। সফরশেষে ১৭ অক্টোবর স্পিকার দেশে ফিরে আসবেন বলে আশা করা হচ্ছে।