২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রার্থিতা পেতে কাদের সিদ্দিকীর আপিল

অনলাইন রিপোর্টার ॥ ঋণখেলাপের দায়ে মনোনয়নপত্র অবৈধ ঘোষণা করে দেয়া রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আপিল করেছেন বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী। তিনি টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনের উপনির্বাচনে অংশ নিতে প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন।

গত ১৩ অক্টোবর রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামান সম্ভাব্য প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বাছাইকালে কাদের সিদ্দিকীর মনোনয়নপত্র বাতিল করেন। শুক্রবার দুপুরে কাদের সিদ্দিকীর পক্ষে রিটার্নিং কর্মকর্তার সে সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল সিদ্দিকী। আপিলের সঙ্গে ঋণখেলাপের অভিযোগ সত্য নয় মর্মে একটি পত্রও দিয়েছেন।

এতে অগ্রণী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালককে দেওয়া বাংলাদেশ ব্যাংকের একটি কারণ দর্শানোর নোটিশও দেওয়া হয়েছে। ওই নোটিশে কাদের সিদ্দিকীর নাম কেনো ঋণখেলাপীর তালিকা অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে, তা জানতে চাওয়া হয়।

১৩ অক্টোবর কাদের সিদ্দিকী ও তার স্ত্রী নাসরিন কাদের সিদ্দিকীসহ চারজনের মনোনয়নপত্র বাতিল করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।

রিটার্নিং কর্মকর্তার যুক্তি, বাংলাদেশ ব্যাংকের ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরো (সিআইবি) জানিয়েছে, সোনার বাংলা প্রকৌশলী সংস্থা নামে কাদের সিদ্দিকীর একটি প্রতিষ্ঠানের নামে অগ্রণী ব্যাংকে ১০ কোটি ৮৮ লাখ টাকা ঋণ রয়েছে। কাদের সিদ্দিকী এ প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান এবং নাসরিন সিদ্দিকী যার পরিচালক। ওই ঋণখেলাপী হওয়ার কারণে তাদের দু’জনের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়।

১৩ অক্টোবর বাছাইয়ের পর রিটার্নিং কর্মকর্তা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের প্রার্থী ইকবাল সিদ্দিকী ও হাসমত আলী, জাতীয় পার্টির (মঞ্জু) সাদেক সিদ্দিকী, বিএনএফের আতাউর রহমান খান এবং এনপিপির ইমরুল কায়েসের মনোনয়পত্র বৈধ ঘোষণা করেন। আগামী ১০ নভেম্বর এ আসনের নির্বাচন হবে।

টাঙ্গাইল-৪ আসনের সাবেক এমপি লতিফ সিদ্দিকী পদত্যাগ করায় গত ১ সেপ্টেম্বর আসনটি শূন্য ঘোষণা করে সংসদ সচিবালয়।