২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সেই ধোনিতেই মুগ্ধ তারা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ক্রিকেট সফলদেরই জয়গান গায়, ব্যর্থদের ফেলে দেয় আঁস্তাকুড়েÑ টানা তিন হারের পর যারা মহেন্দ্র সিং ধোনিকে কচুকাটা করে ছাড়ছিলেন, সেই তারা এখন চুপসে গেছেন। মাত্র এক ম্যাচের ‘ম্যাজিকে’ বদলে গেছে দৃশ্যপট, ‘ধোনি ম্যাজিক’। ব্যাটিং-কিপিং নেতৃত্বের দুর্দান্ত অলরাউন্ড নৈপুণ্যে ইন্দোরে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২২ রানে হারায় ভারত। পিছিয়ে পড়া সিরিজে ১-১এ সমতা। ‘লিডিং ফ্রম দ্য ফ্রন্ট’Ñ ব্যাট হাতে ৮৬ বলে অপরাজিত ৯২ রানের পর উইকেটের পেছনে চার ক্যাচ, ম্যাচসেরা ধোনি। ২-০তে টি২০ সিরিজ হারের পর সমালোচনায় বিদ্ধ ভারত অধিনায়কের প্রশংসায় পঞ্চমুখ সবাই। কে নেই সেই তালিকায়? গ্রেট সুনীল গাভাস্কার, দাদাবাবু সৌরভ গাঙ্গুলী থেকে প্রতিপক্ষ অধিনায়ক এবি ডি ভিলিয়ার্স, সাবেক উইকেটরক্ষক নয়ন দীপ দাস গুপ্তও ধোনির জয়গান গাইছেন।

দুই টি২০’র পর প্রথম ওয়ানডে হারে ক্ষুব্ধ সাবেক পেসার অজিত আগারকার দলে ধোনির জায়াগা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। আগারকারের উদ্দ্যেশে এক ধোনি- ভক্তের টুইট, ‘আগারকার এবার বরং বিরটাকে নিয়ে লিখুন।’ আগারকারকে সমর্থন করেছিলেন যে মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন সেই তিনিও এখন চুপ। উল্টো ব্রায়ান লারার মতো কিংবদন্তি বলছেন, ‘ধোনির সমালোচনা করা অন্যায়। সব স্পোর্টসম্যানের জীবনেই খারাপ সময় আসে। ধোনির নেতৃত্ব দু-দুটি বিশ্বকাপ (টি২০ ও ওয়ানডে) জয়সহ যেসব রেকর্ড রয়েছে, সেটা ভুলে গেলে চলবে না। প্রতিপক্ষ অধিনায়ক ডি ভিলিয়ার্সের মন্তব্য, ‘এমএস ভাল করেই জানে ভারতের মাঠে কিভাবে ম্যাচ জিততে হয়। প্রথম ওয়ানডে হারের পর অধিনায়ককে লক্ষ্য করে দুয়ো দেয়া দর্শক এদিন ধোনির অটোগ্রাফ নিতে হামলে পড়ে।

টানা তিন ম্যাচ হারের পরও একজন ধোনির পাশেই ছিলেন, সেই গাভাস্কার বলেন, ‘ইন্দোরে ধোনির এই ইনিংসের গুরুত্ব ১৪০ রানের সমান। চার-পাঁচ নম্বরে নেমে সেঞ্চুরি করাটা অনেক কঠিন। এছাড়া ঘরের মাটিতে তিন পেসার নিয়ে খেলার সিদ্ধান্তটাও ছিল কঠিন। এ ম্যাচে সবকিছুই ওর বাজির পক্ষে গেছে। আমি মনে করি, এখনও ধোনির ওপর নিশ্চিন্তে আস্থা রাখা যায়।’ গাভাস্কারের মতো ধোনির প্রশংসা করতে ভুল করেননি সাবেক উইকেটরক্ষক দীপ দাস গুপ্ত। তিনি বলেন, ‘প্রথম ওয়ানডেতে হারের পর অনেকে বলে দিয়েছিল, ধোনিকে দিয়ে আর হবে না। ওর ব্যাটিং-অধিনায়কত্ব সবই শেষ। কিন্তু এক ম্যাচেই বুঝিয়ে দিল সে কি! এটাই ওর স্টাইল। দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেলে কিভাবে ঘুরে দাঁড়াতে হয়, ধোনি তা ভাল করেই জানে।’

সাবেক অধিনায়ক সৌরভ বলেন, ‘গত চার বছর ধরে বলে আসছি, ব্যাটিং অর্ডারে ধোনির ওপরের দিকে উঠে আসা উচিত। এখন সে পরিবর্তন করেছে, ফলও পাচ্ছে। দেশকে দেয়ার মতো অনেক কিছুই ওর বাকি রয়েছে।’ এক সময় ছয়-সাতে ব্যাটিং করা ভারত অধিনায়ক ইন্দোরে ব্যাট করেছেন পাঁচ নম্বরে। ধোনি নিজেও খুশি।