১৭ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জিকোকেই যোগ্য বলছেন পেলে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা ফিফার সভাপতি পদের প্রার্থী হতে আগ্রহী ব্রাজিলের সাবেক কিংবদন্তি ফুটবলার জিকো। এবার তার পাশে দাঁড়ালেন ব্রাজিলের সাবেক কিংবদন্তি ফুটবলার পেলে। জিকোকেই ফিফার গুরুত্বপূর্ণ সভাপতি পদের যোগ্য প্রার্থী বলে মনে করেন তিনি। তাই ফিফার সভাপতি পদের জন্য জিকোর লড়াই করা উচিত বলেও জানান পেলে। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ফিফা সভাপতির পদের জন্য সেরা প্রার্থী জিকো। তার নির্বাচন করা উচিত।’

আগামী ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হবে ফিফার সভাপতি পদের নির্বাচন। গত মে মাসে পঞ্চমবারের মতো ফিফা সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার কয়েকদিন পরই পদত্যাগের ঘোষণা দেন সেপ ব্লাটার। অতীতে ফিফার দায়িত্ব পালনে আর্থিক কেলেঙ্কারি, ঘুষ নেয়া ছাড়াও আরও অনেক দুর্নীতির অভিযোগ ছিল তার বিপক্ষে। এই কারণে বিশ্বব্যাপী ‘ব্লাটার হটাও’ ধ্বনিটা ছিল বেশি জোরালো। তাই বাধ্য হয়ে গত জুনে ফিফার দায়িত্ব থেকেই নিজেই সড়ে দাঁড়ান ব্লাটার। আর ফিফার আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে অনেকেই নড়েচড়ে বসেছেন। ইতোমধ্যে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন গত নির্বাচনে ব্লাটারের প্রতিদ্বন্দ্বী করা জর্দানের যুবরাজ আলি বিন আল হুসেইন। কিন্তু ইচ্ছে থাকলেও এখন পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দেননি ব্রাজিলের জিকো। তবে ফিফার সভাপতি পদের সেরা প্রার্থী হিসেবে জিকোকেই মানছেন পেলে। এ বিষয়ে তার অভিমত হলো, ‘ফিফা সভাপতির পদের জন্য সেরা প্রার্থী জিকো। আমি মনে করি, তার নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা উচিত। জাপান দলের কোচ থাকা অবস্থায়ও সে ভাল করেছে। আমি তাকে ভালভাবেই চিনি। সে খুবই ভাল মানুষ। ফিফা নির্বাচনে সে অনেক শক্তিশালী প্রার্থী।’

আগামী ফিফা নির্বাচনে সভাপতি পদে দাঁড়ানোর কথা ইতোমধ্যে চাউর করেছেন ফ্রান্সের সাবেক খেলোয়াড় মিশেল প্লাতিনিও। এমন খবরে শংসয় প্রকাশ করেছেন পেলে। তার মতে প্লাতিনির জন্য এটা অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। এ বিষয়ে পেলে বলেন, ‘ফিফাকে চালানো অনেক কঠিন হবে। আমি প্লাতিনির সঙ্গে কথা বলেছি, সেও বলেছে ফিফার সর্বোচ্চ পদটি নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন হবে। তবে আমি এটা বলতে চাই না, সেখানে আমি কাকে দেখতে চাই। আমি চাই, একজন ভাল মানুষ ফিফার সর্বোচ্চ পদের দায়িত্বে থাকুক।’ প্লাতিনির চ্যালেঞ্জকে আরও কঠিন করে দিল ইংলিশ ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা এফএ। শুক্রবার সংস্থাটি জানিয়ে দিয়েছে, ফিফার নিষেধাজ্ঞাকালীন মিশেল প্লাতিনিকে কোন ধরনের সমর্থন করবে না তারা।