১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মুন্সীগঞ্জে ৭ স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি ॥ আহত ১

মুন্সীগঞ্জে ৭ স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি ॥ আহত ১

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ি উপজেলার দিঘিরপাড় বাজারের ৭টি স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি হয়েছে। শুক্রবার মধ্যরাতে ৪০/৪৫ জনের সশস্ত্র ডাকাত দল পদ্মা পারের বাজারটির নৈশ প্রহরীদের বেধেরেখে স্বর্ণ, রূপা ও নগদ টাকা লুট করে নেয়। সিন্ধুকের চাবি দিতে বিলম্ব করায় স্বর্ণ কর্মকার শ্যামল পালকে (১৮) ধরালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত ও বেদম প্রহার করে। তাকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। প্রায় ঘন্টাধিকাল ধরে লুটপাট শেষে রাত আড়াইটার দিকে ট্রলারে করে পদ্মা নদী দিয়ে পালিয়ে যায় দলটি।

টঙ্গীবাড়ি থানার ওসি আলমগীর হোসেন ঘটনাস্থলে শনিবার সকালে জানান, স্বর্ণের এই দোকানগুলো শো-রুম নয়, মানুষের অর্ডার নেয় স্বর্ণ ও রূপার গহনা তৈরী করে। এর মধ্যে চারটি দোকাণে স্বর্ণ ছিল। বাকী ৩টিতে তেমন কিছু ছিল না। তবে কি পরিমান সোনা-রূপা বা টাকা লুট হয়েছে, তাৎক্ষনিক নিরুপন করা যায়নি। ধরানা করা হচ্ছে-পদ্মা তীরের বিশাল এই বাজারটিতে ডাকাতি শেষে ওপারের শরীয়তপুর-মাদারীপুরের দিকে পালিয়ে গেছে ডাকাতরা। তকাদের গ্রেফতারে বিশেষ অভিযান শুরুর প্রক্রিয়া চলছে।

প্রত্যক্ষদর্শী স্বর্ণের দোকান মালিক সুধীর মাঝি জানান, দোকানে তিনি ঘুমন্ত ছিলেন। রাত আনুমানিক পৌনে ২টার দিকে দরজা ভেঙ্গে ডাকাতদল ভেতরে ঢুকে সিন্ধিুকের চাবীর জন্যঅস্ত্র তাক করে। পরে চাবি নিয়ে সিন্ধুক খুলে স্বর্ণ ও নগদ টাকাসহ প্রায় ৩ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নেয়। পরে পাশের দোকানে হানা দেয়।

তিনি জানান, ডাকাতরা কয়েকভাগে বিভিক্ত হয়ে দোকানগুলোতে হানা দেয়। বাজারে ১০ জন নৈশ প্রহরী রয়েছে। ডাকাতরা তাদের মারধর করে অস্ত্রের মুখে রশি দিয়ে বেধে ফেলে রাখে।

সুধীর মাঝি ছাড়াও ডাকাতি হয়েছে লিটন ঘোষ, শঙ্কর সরকার, বিষু পাল, ফিরুপ চিত্তনিয়া, মিলন দাস ও লক্ষণ দাসের স্বর্ণের দোকানে। তবে বাজারের অন্য কোন দোকানে যায়নি ডাকাতরা।