২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নীলফামারীতে দুর্গোৎসবে ৩৩১টি মন্ডব ঝুঁকিপূর্ন

নীলফামারীতে দুর্গোৎসবে ৩৩১টি মন্ডব ঝুঁকিপূর্ন

স্টাফ রির্পোটার, নীলফামারী॥ আগামীকাল রবিবার থেকে শুরু হচ্ছে হিন্দু সম্প্রদায়ের শারদীয় দুর্গোৎসব। উৎসবকে ঘিরে নীলফামারী জেলা জুড়ে সাজ সাজ রব পড়েছে। জেলার ছয় উপজেলা জুড়ে পুঁজোমন্ডবগুলো বিভিন্ন ভাবে সু-সুজ্জিত করা হয়েছে। পূঁজোকে ঘিরে আইনশৃংখলা বাহিনী কঠোর নিরাপক্তা বেষ্টমী গড়ে তুলেছে।আজ শনিবার নীলফামারী হিন্দু ধর্মীয় কল্যান ট্রাস্টের ট্রাস্টি রথিস চন্দ্র রায় ও নীলফামারী জেলা পুজা উৎযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক এ্যাডঃ রমেন্দ্র নাথ বাপী জানান, গত বছর জেলায় ৭৭৭টি মন্ডপে শারদীয় উৎসব হলেও চলতি বছর ৩৮টি পুজা মন্ডব বৃদ্ধি পেয়ে ৮১৫টি মন্ডবে দাঁড়িয়েছে। এদিকে নীলফামারী পুলিশ বিভাগের গোয়েন্দা শাখা মতে ৮১৫টি পুঁজোমন্ডবের মধ্যে ৩৩১টি মন্ডবকে চিহিৃত করা হয়েছে।

পূঁজা উদযাপন পরিষদ নীলফামারী জেলা শাখার সভাপতি ও জেলা জজ কোর্টের পিপি এ্যাডঃ অক্ষ্ময় কুমার রায় বলেন, ইতোমধ্যে শারদীয় দুর্গোৎসব আয়োজনে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি সেরে ফেলা হয়েছে। জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে উৎসব নির্বিঘেœ করতে যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা তাজুল ইসলাম জানান, এ জেলায় ৮১৫টি পূঁজা মন্ডবের জন্য সরকারিভাবে ৩৮৫ দশমিক ৫০০ মেট্রিকটন চাল বরাদ্দ পাওয়া গেছে। যা প্রতিটি পুঁজোমন্ডবকে সমপরিমানে বন্ঠন করা হয়েছে। নীলফামারী পুলিশ সুপার জাকির হোসেন খাঁন জানান, এ বছর হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপুজাকে সামনে রেখে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় নিরাপত্তা জোড়দারের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। জেলা প্রশাসক জাকীর হোসেন জানান হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপুজাকে সামনে রেখে এ জেলায় যাতে শান্তিপূর্ন উৎসব মুখর পরিবেশে শারদীয় দুর্গোৎসব পালনের সকল ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।