২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে জেএমবি’র সংগঠক সাজিদকে গ্রেফতার

নিজস্ব সংবাদদাতা, টাঙ্গাইল॥ নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামায়াতুল মোজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) চট্টগ্রাম অঞ্চলের এক সংগঠককে টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলা থেকে গ্রেফতার করেছে চট্রগ্রাম গোয়েন্দা পুলিশ। শুক্রবার রাত ২টার দিকে মিনহাজুল ইসলাম সাজিদ (২৪) নামে জেএমবি সংগঠককে গ্রেফতার করে।

শনিবার টাঙ্গাইল গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মাহফীজুল রহমান জানান, চট্টগ্রামের সদরঘাটে তিন খুন ও মাঝিরঘাটে ছিনতাইয়ের সঙ্গে জড়িত ছিল গ্রেফতারকৃত জেএমবি সংগঠক সাজিদ। সে চট্টগ্রাম অঞ্চলে জেএমবিকে সংগঠিত করার কাজ করছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চট্রগাম মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ মধ্য রাতে তাকে টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার পাকুটিয়া গ্রাম থেকে আটক করে। এ সময় হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত একটি মাইক্রোবাস জব্দ করা হয়। জেএমবি সদস্য সাজিদ চট্রগ্রামের জুরানগঞ্জ উপজেলার মধ্যসোনা পাড়া এলাকার তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে।

গত ৫ অক্টোবর চট্টগ্রাম নগরীর কর্ণফুলী থানার খোয়াজনগর এলাকায় জেএমবি’র একটি আস্তানায় অভিযান চালিয়ে আটটি হ্যান্ডগ্রেনেড ও বিপুল পরিমাণ বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করে চট্রগ্রাম নগর গোয়েন্দা পুলিশ। এ সময় জেএমবি’র সামরিক প্রধান জাবেদসহ পাঁচজনকে আটক করা হয়। জাবেদ গত ৬ অক্টোবর ভোরে গোয়েন্দা পুলিশের সঙ্গে আরেকটি অভিযানে গিয়ে গ্রেনেড বিস্ফোরণে নিহত হন। বাকি চারজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুই দফা রিমান্ডে নেয় গোয়েন্দা পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে তাদের কাছ থেকে সাজিদের বিষয়ে তথ্য পাওয়া যায়।

উল্লেখ্য, গত ২৩ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামের সদরঘাট থানার মাঝিরঘাটে ছিনতাই করতে গিয়ে হ্যান্ডগ্রেনেড বিস্ফোরণে দু’জন ছিনতাইকারী ঘটনাস্থলেই নিহত হয় এবং পরে ঘটনার শিকার ব্যবসায়ীও মারা যায়। জঙ্গি অর্থ সংগ্রহের জন্য সংঘটিত এ ছিনতাইয়ে আটজন জেএমবি সদস্য অংশ নিয়েছিল বলে রিমান্ডে ওই চারজন তথ্য দিয়েছে।