১৯ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গার্ড মুলারকেও ছাড়িয়ে যাবেন লেভানডোস্কি

গার্ড মুলারকেও ছাড়িয়ে যাবেন লেভানডোস্কি
  • অভিমত ডেভিড আলবার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দুর্দান্ত রবার্ট লেভানডোস্কি। ক্লাব কিংবা জাতীয় দল-উভয়ক্ষেত্রেই দুর্দান্ত পারফর্মেন্স উপহার দিচ্ছেন তিনি। সম্প্রতি বুন্দেসলিগার ম্যাচে উলফসবার্গের বিপক্ষে মাত্র ৯ মিনিটে করেন পাঁচ গোল। শুধু তাই নয়, গত সপ্তাহে তার পারফর্মেন্সের সৌজন্যেই ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের মূলপর্বে জায়গা করে নেয় পোল্যান্ড। আর লেভানডোস্কির এমন পারফর্মেন্সে মুগ্ধ তারই ক্লাব সতীর্থ ডেভিড আলবা। অস্ট্রিয়ার এই মিডফিল্ডার মনে করেন, লেভানডোস্কি একদিন জার্মান কিংবদন্তি গার্ড মুলারের রেকর্ডকেও ছাড়িয়ে যাবেন। ১৯৭২ সালে জার্মান বুন্দেসলিগায় এক মৌসুমে ৪০ গোল করেছিলেন গার্ড মুলার। এখন পর্যন্ত এক মৌসুমে এটাই সর্বোচ্চ। আর চলতি মৌসুমের প্রথম সাত ম্যাচেই সাত গোল করে পাদপ্রদীপের আলোয় বেয়ার্ন মিউনিখের লেভানডোস্কি। যে কারণে আলবা মনে করেন, বেয়ার্নের পোলিশ তারকা লেভানডোস্কির পক্ষেই এই রেকর্ড ভাঙ্গা সম্ভব। এ বিষয়ে ২৩ বছর বয়সী তরুণ প্রতিভাবান মিডফিল্ডার আলবা বলেন, ‘৪০ গোল নিঃসন্দেহে অনেক বড় লক্ষ্য। কিন্তু তার (লেভানডোস্কি) দ্বারা অসম্ভব বলে কিছুই মনে হয় না।’

জার্মান বুন্দেসলিগায় বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের জার্সিতে অসাধারণ পারফর্মেন্স উপহার দিয়ে নিজেকে মেলে ধরেন লেভানডোস্কি। ২০১২-১৩ মৌসুমে বরুশিয়ার হয়ে সর্বোচ্চ ২৪ গোল করেছিলেন তিনি। এখন পর্যন্ত এটাই তার সর্বোচ্চ। গত মৌসুমে নতুন ক্লাব বেয়ার্নে যোগ দেয়ার পর অনায়াসেই করেন ১৭ গোল। তার অসাধারণ পারফর্মেন্সের সৌজন্যে ক্লাবও টানা তিনবারের মতো লীগ শিরোপা জয়ের স্বাদ পায়। সতীর্থ আলবার এমন মন্তব্যে লেভানডোস্কি নিশ্চয়ই আরও বেশি অনুপ্রাণিত হয়ে নিজেকে মেলে ধরবেন। বেয়ার্ন মিউনিখের সাবেক কিংবদন্তি ৬০৫ ম্যাচে করেছিলেন ৫৫৬ গোল। বুন্দেসলিগায় তিনি দীর্ঘ ১৫ বছর খেলেছেন দাপটের সঙ্গে। এই সময়ের মধ্যে তিনবার ইউরোপিয়ান কাপ জয়েরও স্বাদ পান তিনি।

আর রবার্ট লেভানডোস্কির বুন্দেসলিগার বয়স মাত্র পাঁচ বছর। আর এই সময়ের মধ্যেই গোলের দিক দিয়ে শতকের (১০৩) কোটা ছাড়িয়ে গেছেন তিনি। তবে ২৭ বছর বয়সী লেভানডোস্কি তার বুন্দেসলিগা ক্যারিয়ারে গত মাসেই সবচেয়ে বেশি আলোচনায় আসেন। কারণ উলফসবার্গের বিপক্ষে তার করা পাঁচ গোল। শুধু তাই নয়, অসামান্য এই কীর্তির পাশাপাশি সবচেয়ে কম সময়ে হ্যাটট্রিক করার নতুন রেকর্ডও গড়েছেন ২৭ বছর বয়সী এই তারকা। প্রথম তিন গোল করতে তিনি সময় নেন মাত্র পাঁচ মিনিট ১৯ সেকেন্ড। এছাড়া সাত মিনিট ৪২ সেকেন্ডে করা চতুর্থ গোলটিও বুন্দেসলিগার নতুন রেকর্ড। আর পঞ্চম গোলটি করেছেন নয় মিনিটের মধ্যে। ১৯৯১ সালের আগস্টে কার্লশ্রুইয়ের বিপক্ষে ডুইসবার্গের ৬-২ গোলে জয়ের ম্যাচটিতে মাইকেল টোয়েনিস পাঁচ গোল করেছিলেন। তারপর বুন্দেসলিগায় এটাই প্রথম পাঁচ গোলের ঘটনা। তবে বদলি হিসেবে নেমে পাঁচ গোল করা খেলোয়াড় লেভানডোস্কিই প্রথম। এর আগে ২০১৩ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের সেমিফাইনালে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের হয়ে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে তিনি একাই করেছিলেন চার গোল। তার সেই কীর্তি চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ইতিহাসেরই অন্যতম সেরা। যেটাকে এখন পর্যন্ত সেরা মানেন পোলিশ তারকা, ‘চ্যাম্পিয়ন্স লীগের সেমিফাইনালে রিয়ালের বিপক্ষে চার গোল করা সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। এটা আমার ক্যারিয়ারে অনেক বড় একটি গল্প।’ লেভানডোস্কি চমক দেখিয়েছেন ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাইপর্বেও। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে দুই গোল করে পোল্যান্ডকে পরাজয়ের হাত থেকে রক্ষা করেন তিনি। ওই ম্যাচে ২-২ গোলের ড্র করে ফ্রান্সে যাওয়ার টিকেট নিশ্চিত করে তার দল।

এদিকে, সম্প্রতি লিভারপুলের কোচ হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন লেভানডোস্কিরই সাবেক ক্লাব ডর্টমুন্ডের অভিজ্ঞ কোচ জার্গেন ক্লপ, যার সঙ্গে বেশ ভাল সম্পর্ক ছিল তার। প্রিমিয়ার লীগে নতুন করে ক্লপ ঠিকানা করায় উচ্ছ্বসিত লেভানডোস্কিও। তার মতে প্রিমিয়ার লীগই ক্লপের জন্য সেরা স্থান।