১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গেইলের পারিশ্রমিক ম্যাচপ্রতি ২৭ লাখ টাকা

  • বিপিএল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ টি২০ কোন লীগে সব দলের জন্যই হটকেক ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইল। সব দলই এ ক্রিকেটারকে অর্থ খরচের বিপরীতে হলেও পেতে চায়। প্রথম কারণ, গেইল যেদিন খেলবেন, সেদিন দলও জিতবে। দ্বিতীয় কারণ, দলের গ্ল্যামার অনেক বেড়ে যায়। যখন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল-টি২০) দোড়গোড়ায়, তখন এ ‘দানব ব্যাটসম্যান’র দিকে চোখ ছিল বিপিএলের সব দলেরই। তবে শুরুতেই বাজিমাত করতে পেরেছে বরিশাল দলটি। যে দলের নাম হচ্ছে বরিশাল বুলস। কিন্তু কত অর্থ পাবেন গেইল? চোখ কপালে উঠে যাওয়ার মতো তথ্য মিলল। ম্যাচপ্রতি ২৭ লাখ টাকা পাবেন গেইল!

এমনটিই জানিয়েছেন বরিশাল বুলসের মালিক রিজওয়ান বিন ফারুক। জানিয়েছেন, ‘গেইলের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে ম্যাচপ্রতি ৩৫ হাজার মার্কিন ডলারের (প্রায় সাড়ে ২৭ লাখ টাকা)।’ সেই হিসাবে বরিশাল যদি ফাইনাল পর্যন্ত খেলে এবং গেইলও সবকটি ম্যাচ খেলেন, তাহলে কোটি কোটি টাকা শুধু গেইলের পেছনেই খরচ করতে হবে বরিশাল দলটিকে। সেই অর্থ কত দাড়াচ্ছে? হিসাব করে দেখা যাক তা।

যদি সবকটি ম্যাচ খেলেন গেইল আর বরিশাল বুলস খেলে ফাইনালে তাহলে ডাবল লীগ পদ্ধতির বিপিএলে লীগপর্বের ১০টি ম্যাচ ও দ্বিতীয় ধাপের একটি ম্যাচ ও ফাইনাল হিসাব করে ১২টি ম্যাচ খেলবেন গেইল। ২৭ লাখ টাকা করে ধরলে এ ১২ ম্যাচে ৩ কোটি ২৪ লাখ টাকা শুধু গেইলের পেছনেই বরিশালকে খরচ করতে হবে। যেহেতু আইপিএলের নিয়ম অনুযায়ী ফাইনালে ওঠার জন্য খেলা হবে। সেই হিসাবে যদি পয়েন্ট তালিকায় লীগপর্বের সেরা দুই দলের মধ্যে থাকে বরিশাল এবং ফাইনালে ওঠার প্রথম ম্যাচটিতে হেরে যায় বরিশাল, তাহলে আরও একটি ম্যাচ বাড়বে। সেক্ষেত্রে সাড়ে তিন কোটি টাকার বেশি খরচ হবে গেইলের পেছনে।

ইনজুরির জন্য গেইল টেস্ট খেলেন না। তার টেস্ট খেলার আগ্রহও নেই। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চলমান টেস্ট সিরিজেই তাই নেই গেইল। এমনকি নেই ওয়ানডে ও টি২০ সিরিজেও। লঙ্কানদের বিপক্ষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সিরিজটি শেষ হবে ১২ নবেম্বর। এরপর ওয়েস্ট ইন্ডিজ আবার ১০ ডিসেম্বর থেকে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলা শুরু করবে। বিপিএলের তৃতীয় আসরের খেলা শুরু হবে ২২ নবেম্বর। শেষ হবে ১৫ ডিসেম্বর। যদি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজে গেইল শেষ পর্যন্ত খেলেন, তাহলে লীগপর্বের সবকটি খেলা খেলতে পারবেন। তার মানে ১০টি ম্যাচ খেলবেন। তাতেও গেইলের বিপিএল থেকে আয় হবে ২ কোটি ৭০ লাখ টাকা!

টি২০ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপনের নাম এখন গেইল। বিশ্বের এমন কোন টি২০ লীগ নেই যেখানে গেইলকে দেখা যায় না। আইপিএল, বিগব্যাশ, নিজ দেশের সিপিএল, কাউন্টি- সব স্থানেই গেইলের বিচরণ। বিপিএলে এর আগে বরিশালের হয়েই মাঠ মাতিয়েছেন গেইল। এবারও বরিশালের হয়েই খেলবেন।

বিপিএলের প্রথম দুই আসরে যেমন হটকেক ছিলেন গেইল, এবারও তাই থাকছেন। তবে খুব দ্রুতই বরিশালে নাম লিখিয়ে ফেলেছেন।

বিপিএল গবর্নিং কাউন্সিল গেইলের দল আগেই নিশ্চিত করেছিল। বিদেশী ক্রিকেটারদের জন্য সর্বোচ্চ মূল্য নির্ধারণ করে দিয়েছে ৭০ হাজার মার্কিন ডলার (প্রায় ৫৫ লাখ টাকা)। তবে কর্তৃপক্ষ এটাও জানিয়ে দিয়েছে, ফ্রাঞ্চাইজিগুলো চাইলে স্ব উদ্যোগে দেশী কিংবা বিদেশী ক্রিকেটারদের সঙ্গে নির্ধারিত সীমার বাইরে গিয়ে চুক্তি করতে পারবে। গেইল, শহীদ আফ্রিদি, কুমার সাঙ্গাকারা, তিলকারত্মে দিলশানের মতো ক্রিকেটারদের তো ‘প্লেয়ার্স বাই চয়েসে’ রাখাই হয়নি। তাই দলগুলো নিজ উদ্যোগে ক্রিকেটার দলে ভেড়াচ্ছে। তবে সেক্ষেত্রে বিসিবি নির্ধারিত সীমার বাইরে অর্থের কোন গ্যারান্টি দেবে না। সেদিকে কারও মনোযোগই নেই। দলের ক্রেজ বাড়াতে বিশ্বের হার্টথ্রব ক্রিকেটারদের দলে ভেড়াচ্ছে দলগুলো। বরিশাল তাতে তাক লাগিয়ে দিল। টি২০ ক্রিকেটের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ক্রিকেটার গেইলকে দলে ভিড়িয়ে ফেলেছে। এজন্য ম্যাচপ্রতি ২৭ লাখ টাকাও খরচ করতে হবে বরিশালকে।