২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পরিবেশ বিপর্যয়ে কক্সবাজার

  • পাহাড়-বৃক্ষ কাটা ও জলাশয় ভরাট

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার ॥ পর্যটন শহর কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন স্থানে নির্বিচারে পাহাড় কাটা চলছে। পাশাপাশি অব্যাহত রয়েছে বৃক্ষ নিধন, জলাশয় ভরাট ও অপরিকল্পিত নগরায়ন। ফলে জলবায়ুর পরিবর্তনের প্রভাবে পরিবেশ বিপর্যয়ের মুখে পড়ছে পুরো কক্সবাজার জেলা। প্রতিবেশগত সঙ্কটাপন্ন এলাকা হিসেবে চিহ্নিত বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজার দিন দিন ঝুঁকির সম্মুখীন হলেও এক শ্রেণীর ধান্ধাবাজ নেতার কারণে পরিবেশ বিধ্বংসী ওসব কর্মকা- রোধে প্রশাসন জোরালো ব্যবস্থা নিতে পারছে না বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। জানা যায়, বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত নগরী কক্সবাজারকে আধুনিকায়ন করার বাহনায় গত কয়েক বছরে নির্বিচারে কাটা হয়েছে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষাকারী অসংখ্য পাহাড়। বেঁচে থাকার জন্য জরুরী অক্সিজেন সরবরাহকারী বৃক্ষ নির্বিচারে কেটে সাবাড় করা হয়েছে বনাঞ্চল থেকে। এখনও এ ধারা অব্যাহত রয়েছে। সেই সঙ্গে পর্যটন শহরে গড়ে উঠছে শত শত অপরিকল্পিত বহুতল ভবন। এখানে নেই কোন উন্নত ড্রেনেজ ব্যবস্থা। একটু বৃষ্টি হলেই সরু ড্রেনগুলো পাহাড় কাটা মাটি এসে ভরে যায়। শহরে যত্রতত্র নালা, ড্রেন দখল-বেদখল হয়ে গেছে। দখলদারদের তালিকাও হয়েছে একাধিক সময়ে। ড্রেনের উপর স্থান পেয়েছে দোকানপাট, হোটেল, বাসাবাড়ি, ময়লা-আবর্জনার স্তূপ। ময়লা-আবর্জনা সরানোর নামে পৌর কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তারা হাজার হাজার টাকা বিল উত্তোলন করলেও ময়লার স্তূপ ঠিকই থেকে যাচ্ছে রাস্তা ও নালা-নর্দমায়। এসব কারণে একদিকে পৌর শহরে জলাবদ্ধতা সৃষ্টির পাশাপাশি স্থানীয়রা কক্সবাজারে মারাত্মকভাবে পরিবেশের বিপর্যয় ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন।

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ জালিয়াপাড়া ও প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিন ভাঙ্গনের কবলে পড়েছে। শাহপরীর দ্বীপে বর্তমানেও চলছে জোয়ার ভাটা। কক্সবাজার পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সর্দার শরিফুল ইসলাম জানান, পাহাড় কাটার বিরুদ্ধে নিয়মিত অভিযান চলছে। বেশ কিছু ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলাও দায়ের করা হয়েছে।

চট্টগ্রামের জেএমবি নেতা টাঙ্গাইলে গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস/ নিজস্ব সংবাদদাতা, টাঙ্গাইল ॥ নিষিদ্ধ ঘোষিত জেএমবির চট্টগ্রাম অঞ্চলের আরও এক নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মিনহাজুল ইসলাম সজিব (২৪) নামের এই জেএমবি নেতা গত ২৩ সেপ্টেম্বর নগরীর মাঝিরঘাট এলাকায় একটি ছিনতাই ঘটনায় জড়িত। ওই ঘটনায় বিস্ফোরণে জেএমবির দুই সদস্য প্রাণ হারায়। পুলিশ জানিয়েছে, গ্রেফতারকৃত মিনহাজুল ইসলাম জেএমবি চট্টগ্রাম শাখার অপারেশন টিমের সদস্য। সে মীরসরাই উপজেলার জোরারগঞ্জ থানার মধ্যম সোনাপাড়া গ্রামের তোফাজ্জল হোসেন দুলালের পুত্র। ছিনতাইয়ের ঘটনায় ব্যবহৃত মাইক্রোবাসটিও উদ্ধার করা হয়েছে। মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ শুক্রবার ভোরে টাঙ্গাইলের নাগপুর এলাকার এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

নির্বাচিত সংবাদ