২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মিশরের পার্লামেন্ট নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু

অনলাইন ডেস্ক ॥ মিশরের দীর্ঘ বিলম্বিত পার্লামেন্ট নির্বাচনের প্রথম পর্বের ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে।

ভোটাররা ভোটের মাধ্যমে পার্লামেন্টের নিম্মকক্ষ 'হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভস'র ৫৯৬ জন এমপি নির্বাচন করবেন।

দুই পর্বে ভোট গ্রহণ হবে। প্রথম পর্বের ভোট ১৮ ও ১৯ অক্টোবর এবং দ্বিতীয় পর্বের ভোট ২২ ও ২৩ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে।

ডিসেম্বর নাগাদ ভোটের চূড়ান্ত ফলাফল পাওয়া যাবে।

২০১২ সালের জুনে আদালতের নির্দেশে তৎকালীন পার্লামেন্টে ভেঙ্গে দেয়ার পর এই প্রথম দেশটিতে এ ধরণের নির্বাচন হচ্ছে।

এই নির্বাচনের মাধ্যমে দীর্ঘদিন পর মিশরে গণতন্ত্র পুনপ্রতিষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বলে মনে করছেন নির্বাচন কর্মকর্তারা।

যদিও সমালোচকরা বলেন, নিম্মকক্ষের নির্বাচনের অধিকাংশ প্রার্থী প্রেসিডেন্ট আব্দুল ফাত্তাহ আল-সিসি'র সমর্থক। তাই নতুন পার্লামেন্ট মিশরের উপর তার নিয়ন্ত্রণকে আরও শক্তিশালী করবে।

২০১১ সালের গণঅভ্যুত্থানে মিশরের দীর্ঘ তিন দশকের সামরিক শাসক হোসনি মুবারকের পতন হয়।

এরপর নির্বাচনের মাধ্যমে দেশটির ক্ষমতায় আসে মুসলিম ব্রাদারহুড নেতৃত্বাধীন সরকার।

মুসলিম ব্রাদারহুড নেতা সাবেক প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ মুরসি প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।

মুরসি বিরোধী গণআন্দোলন শুরুর পর ২০১৩ সালের জুলাইয়ে তৎকালীন সেনাপ্রধান আব্দুল ফাত্তাহ আল-সিসি নেতৃত্বাধীন সেনাবাহিনী অভ্যুত্থানের মাধ্যমে মুরসিকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দেয়।

২০১৪ সালের জুনে মিশরের ষষ্ঠ প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন আল-সিসি।

সর্বশেষ পার্লামেন্টে নির্বাচনে প্রায় অর্ধেক আসনে জয়লাভ করেছিল মুসলিম ব্রাদারহুড। কিন্তু এবারের নির্বাচনে নিষিদ্ধ ঘোষিত দলটি অংশগ্রহণ করতে পারছে না। যদিও সাবেক সামরিক শাসক হোসনি মুবারকের দল নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে।

নির্বাচন উপলক্ষ্যে দেশজুড়ে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

শনিবার প্রেসিডেন্ট সিসি টেলিভিশনে এক ভাষণে ভোটারদের উদ্দেশ্যে বলেন, "আমাদের নতুন মিশরের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের আশায় ভোট কেন্দ্রগুলোর সমানে লাইনে দাঁড়িয়ে নিজের ভোট দিন।"