১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গাইবান্ধায় এমপি লিটনের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন

গাইবান্ধায় এমপি লিটনের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা ॥ সুন্দরগঞ্জের এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের নিঃশর্ত মুক্তি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সোচ্চার হয়ে উঠেছে সুন্দরগঞ্জের সর্বস্তরের হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ। রোববার বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ সুন্দরগঞ্জ উপজেলা শাখার উদ্যোগে সুন্দরগঞ্জে মানববন্ধন, মিছিল ও স্মারকলিপি প্রদানের কর্মসূচী পালিত হয়। এতে ওই উপজেলার বিপুল সংখ্যক নারী-পুরুষ স্বতঃস্ফুর্তভাবে অংশ নেয়।

মিছিল শেষে বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল চত্বরে এক মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়। পরে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে এমপি লিটনের নিঃশর্ত মুক্তি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল হাই মিল্টনের কাছে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ সুন্দরগঞ্জ উপজেলা শাখার উদ্যোগে এই কর্মসূচী পালিত হয়। মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন সুন্দরগঞ্জ উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দীপক কুমার সরকার বাবলু, সাধারণ সম্পাদক রণজিৎ কুমার সরকার, নরেনন্দ্র দেব নাথ, সুজিত কুমার, জ্যোর্তিময় সরকার, শিশির কুমার সরকার, নরেশ চন্দ্র প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, দেশে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে মোকাবেলা করে অসম্প্রদায়িক রাজনীতি তথা বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যা বর্তমানে অসম্প্রদায়িক রাজনীতির ধারক বাহক হিসেবে পরিচালিত হচ্ছে। সেই অসম্প্রদায়িক ও মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দানকারি দলকে বিভিন্ন ঘাত প্রতিঘাতের মধ্য দিয়ে সুন্দরগঞ্জের মত জায়গায় প্রতিষ্ঠিত করেছেন এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন। স্বাধীনতার ৪২ বছর পর নির্বাচিত হয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে একজন আওয়ামী লীগ দলীয় এমপি উপহার দিয়েছেন তিনি। বক্তারা আরও বলেন, গত বছর এমপি লিটনের তৎপরতায় এবং আর্থিক সহায়তায় সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় ১৪০টি মন্ডপ ও মন্দিরে শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপিত হয়েছে। কিন্তু এবছর তিনি জেলখানায় আবদ্ধ থাকায় মাত্র ১২০টি দুর্গাপুজা উদযাপিত হচ্ছে। অথচ আমাদের আশা ছিল এমপি লিটনের সক্রিয় সহাতায় সুন্দরগঞ্জে এ বছর ১৬০টি দুর্গাপুজা উদযাপিত হতো।