১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সুধারামের রাজাকার কুদ্দুসের জামিন আবেদন খারিজ ॥ যুদ্ধাপরাধী বিচার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে নোয়াখালী জেলার সুধারাম থানার পাঁচ রাজাকারের মধ্যে ক্যান্সারে আক্রান্ত আব্দুল কুদ্দুসের জামিন আবেদন খারিজ করেছে ট্রাইব্যুনাল। চেয়ারম্যান বিচারপতি আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ রবিবার এ আদেশ প্রদান করেছেন। ট্রাইব্যুনালের অন্য দুই সদস্য হলেন- বিচারপতি মোঃ শাহিনুর ইসলাম ও বিচারপতি মোহাম্মদ সোহরাওয়ার্দী।

ট্রাইব্যুনালে প্রসিকিউটর জাহিদ ইমাম, ব্যারিস্টার তাপস কান্তি বল প্রসিকিউশন ও আসামিপক্ষে ছিলেন এ্যাডভোকেট তারিকুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। গত ১৪ অক্টোবর তার জামিন আবেদনের শুনানি করে আদেশের জন্য ১৮ অক্টোবর দিন নির্ধারণ করে ট্রাইব্যুনাল। এর আগে অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে আব্দুল কুদ্দুস ট্রাইব্যুনালে জামিন আবেদন করেন। ১৪ অক্টোবর আব্দুল কুদ্দুসসহ নোয়াখালীর পাঁচ রাজাকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নেয় ট্রাইব্যুনাল। একই সঙ্গে মামলার পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ২৪ নবেম্বর দিন ঠিক করে।

১৪ অক্টোবর ট্রাইব্যুনালে আসামির অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে তার পক্ষে জামিন আবেদন ও এর শুনানি করেন আব্দুল কুদ্দুসের আইনজীবী তারিকুল ইসলাম। অপরদিকে এ সময় ট্রাইব্যুনালে উপস্থিত ছিলেন প্রসিকিউটর জাহিদ ইমাম। এর আগে গত ৭ অক্টোবর ট্রাইব্যুনাল আসামি ক্যান্সার রোগে কেমো চিকিৎসার অধীনে থাকার বিষয়ে অবগত হয় এবং তার উন্নত চিকিৎসার জন্য একটি মেডিক্যাল বোর্ড গঠনের নির্দেশ দেয়। উল্লেখ্য, এ মামলায় ট্রাইব্যুনালের আদেশে এখন পর্যন্ত কারাগারে আছেন আমীর আহম্মেদ ওরফে আমীর আলী, মোঃ ইউসুফ, মোঃ জয়নাল আবেদীন ও মোঃ আব্দুল কুদ্দুস। অপরদিকে এ মামলায় এখনও পলাতক আছেন আবুল কালাম ওরফে একেএম মনসুর। আসামিদের বিরুদ্ধে একাত্তরে হত্যা-গণহত্যাসহ মানবতাবিরোধী তিনটি অপরাধের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগ রয়েছে।

নোয়াখালীতে যুদ্ধাপরাধে অভিযুক্ত এই পাঁচ রাজাকারের বিরুদ্ধে গত বছরের ১৬ নবেম্বর তদন্ত শুরু হয়ে গত ৩১ আগস্ট শেষ হয়। ওই দিনই তদন্ত প্রতিবেদন প্রসিকিউশনের কাছে জমা দেন তদন্ত কর্মকর্তা। আসামিদের বিরুদ্ধে একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধকালে নোয়াখালীর সুধারাম থানায় এক শ’ ১১ জনকে গণহত্যাসহ তিনটি অভিযোগ রয়েছে। প্রসিকিউশনের আনা অভিযোগে বলা হয়, একাত্তরের ১৫ জুন নোয়াখালীর সুধারামে ৪১ জনসহ শতাধিক ব্যক্তিকে হত্যা-গণহত্যায় নেতৃত্ব দেন এই পাঁচ আসামি।