২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে ৭৯ শতাংশ কোম্পানির দর কমেছে

  • তিন দিনে সূচক কমলো ১৭১ পয়েন্ট

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের দুই বাজারে দরপতন অব্যাহত রয়েছে। টানা তিন কার্যদিবসই দরপতনে শেষ হয়েছে লেনদেন। শুধু তাই নয়, গত তিন কার্যদিবসে সার্বিক সূচক কমেছে ১৭১ পয়েন্ট। আস্থাহীনতায় শেয়ার বিক্রির চাপ বাড়ার কারণে ক্রেতার সংখ্যাও কম ছিল। এই কারণে রবিবারে উভয় বাজারেই কমেছে লেনদেনের পরিমাণও। এদিন ডিএসইতে প্রায় ৭৮ দশমিক ৮৬ বা ৭৯ শতাংশ কোম্পানির দরপতন হয়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, আগের দুই কার্যদিবসের ধারাবাহিকতায় রবিবারেও দরপতন দিয়ে লেনদেন শুরু হয়। গ্রামীণ ফোন, লাফার্জ সুরমার মতো বড় মূলধনী কোম্পানিরই দর কমতে থাকে। একইসঙ্গে অন্যান্য কিছু বড় কোম্পানিও দর হারাতে থাকে। শুধু তাই নয় নতুন তালিকাভুক্ত কোম্পানি কেডিএস এক্সেসরিজেরও দর কমে যায় ১৬ দশমিক ৯০ শতাংশ। একইভাবে শীর্ষ লেনদেনে থাকা বিএসআরএম লিমিটেড ছাড়া সবক’টি কোম্পানিরই দর কমেছে।

এদিকে দর হারাতে থাকায় বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণও কমে যায়। ফলে সার্বিক লেনদেনেও কিছুটা ভাটা দেখা দেয়। দিনশেষে ডিএসইতে সার্বিক লেনদেন হয়েছে ৩১০ কোটি টাকা। যা আগের দিনের তুলনায় ৯৩ কোটি টাকা বা ২৩ দশমিক ১৪ শতাংশ কম। আগের দিন এ বাজারে ৪০৪ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩১৭টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৪৪টি, কমেছে ২৫০টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩টি কোম্পানির শেয়ারের দর।

সকালে নেতিবাচক প্রবণতা দিয়ে শুরুর পরে ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্য সূচক ৬৮ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৬০৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ২০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ৯৪ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ২৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৭৪৩ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হলো : লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, বিএসআরএম স্টিলস, সাইফ পাওয়ারটেক, কেডিএস এক্সেসরিজ, বেক্সিমকো ফার্মা, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস, গ্রামীণফোন, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিঃ এবং সিভিও পেট্রোকেমিক্যাল রিফাইনারি লিঃ।

ডিএসইর দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : আইপিডিসি, ব্র্যাক ব্যাংক, মিরাকল ইন্ডাস্ট্রিজ, বার্জার পেইন্টস, ব্রিটিশ-আমেরিকান লিমিটেড, আইসিবি ১ম এনআরবি, এশিয়া প্যাসিফিক ইন্স্যুরেন্স, বিএসআরএম স্টিল, বিএসআরএম লিমিটেড ও ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টস।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো : সাইফ পাওয়ার টেক, কেডিএস এক্সেসরিজ, মডার্ন ডায়িং, ওলিম্পিক এক্সেসরিজ, ওরিয়ন ইনফিউশন, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, এ্যাপেক্স ফুডস, সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্স, প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স ও এএফসি এ্যাগ্রো।

এদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন হয়েছে ২৯ কোটি টাকা। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ২৩৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৮২ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪৩টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৩৩টি কোম্পানির, দর কমেছে ১৯২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮টি কোম্পানির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : মোজাফফর হোসেন স্পিনিং, কেডিএস লিমিটেড, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, সাইফ পাওয়ার টেক, বিএসআরএম স্টিল, জাহিন স্পিনিং, ইউনাইটেড এয়ার, স্কয়ার ফার্মা ও বেক্সিমকো লিমিটেড।