২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পৌরসভার পানিতে কলেরার জীবাণু!

  • গবেষক দলের তথ্য

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ ভয়াবহ ডায়রিয়া পরিস্থিতির জন্যে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে পৌর কর্তৃপক্ষ দায়ী। পানি সরবরাহ ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সঠিক নিয়মে না করে নাগরিকদের মরণফাঁদে ফেলেছে পৌরকর্তারা। পানিতে মিলেছে কলেরার জীবাণু। স্বাস্থ্য বিভাগের গবেষক দল এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

সূত্র জানিয়েছে, যশোর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ডায়রিয়া রোগীর চিকিৎসা দিতে গিয়ে নাজেহাল হয়ে পড়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে ৫০ ভাগ রোগীই পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের। শহরের পুরাতন কসবা, কাজীপাড়া, কাঁঠালতলা, পুলিশ লাইন এলাকার মানুষ বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। একইসঙ্গে ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ষষ্ঠীতলাপাড়া, চাঁচড়া, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বেজপাড়া, শঙ্করপুর এলাকার মানুষও আক্রান্ত হচ্ছে। ঢাকা থেকে আগত গবেষক দল হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের সঙ্গে কথা বলে ও সরেজমিন পরিদর্শন করে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাবের মূল কারণ চিহ্নিত করেছে। একইসঙ্গে রোগীর মল পরীক্ষার রিপোর্টও নিশ্চিত করেছে মাত্রাতিরিক্ত প্রাদুর্ভাবের আসল কারণ। মল পরীক্ষার রিপোর্টে কলেরার জীবাণু ধরা পড়েছে। বিশেষজ্ঞদের গবেষণায় উঠে এসেছে, আক্রান্ত রোগীদের বসবাসের এলাকার পানি সরবরাহ লাইনে অস্বাভাবিক ত্রুটি রয়েছে। পানির পাইপে একাধিক স্থানে ছিদ্র রয়েছে। একইসঙ্গে মলমূত্র নিষ্কাশনের লাইনের সঙ্গে পানি সরবরাহ লাইন একাকার হয়ে গেছে।