২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রিয়ালের সর্বোচ্চ গোলদাতা রোনাল্ডো

রিয়ালের সর্বোচ্চ গোলদাতা রোনাল্ডো
  • বার্সিলোনার জার্সিতে প্রথমবার চার গোল করে সি আর সেভেনকে ছাড়িয়ে নেইমার, দুই মহাতারকার প্রশংসায় কোচ রাফায়েল বেনিতেজ ও লুইস এনরিকে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ রিয়াল মাদ্রিদ আগেই স্বীকৃতি দিয়েছে। কিন্তু লা লিগার হিসেবে রেকর্ডটা রাউল গঞ্জালেসের সঙ্গে ভাগাভাগি করতে হচ্ছিল। অবশেষে সব যদি, কিন্তুর অবসান ঘটিয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতার রেকর্ড এককভাবে নিজের করে নিয়েছেন পর্তুগীজ সুপারস্টার।

শনিবার স্প্যনিশ লা লিগার ম্যাচে লেভান্তের বিপক্ষে এক গোল করে গৌরবময় রেকর্ডটি গড়েছেন বর্তমান ফিফা সের ফুটবলার রোনাল্ডো। লেভান্তের বিপক্ষে ঘরের মাঠ সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে রিয়ালের ৩-০ গোলের জয়ের ম্যাচটিত ৩০ মিনিটে লক্ষ্যভেদ করেন সি আর সেভেন। এই গোলের মধ্য দিয়ে রিয়ালের হয়ে ৩১০ ম্যাচে ৩২৪ গোলের রেকর্ড করেছেন রোনাল্ডো। অনন্য এই রেকর্ড গড়তে রাউলের চেয়ে রোনাল্ডো ম্যাচ কম খেলেছেন ৪৩১টি! তবে গ্যালাক্টিকোরা আগেই সি আর সেভেনকে সর্বোচ্চ গোলের স্বীকৃতি দিয়েছে। যার প্রমাণ হিসেবে ইতোমধ্যে তারা রোনাল্ডোর হাতে স্মারকও তুলে দিয়েছে। শুধু রেকর্ড গড়েই থেমে থাকেননি রোনাল্ডো। নিজে গোল করার পাশাপাশি অবদান রেখেছেন অন্য গোলেও। যে কারণে কোচসহ সতীর্থদের প্রশংসাও পেয়েছেন। রেকর্ড গড়া ম্যাচ শেষে রোনাল্ডোর প্রশংসা করে কোচ রাফায়েল বেনিতেজ বলেন, দলকে পথ দেখাতে ক্রিশ্চিয়ানোকে এগিয়ে আসতে হতো এবং তার দায়িত্ব নিতে হতো। সে এটাই করেছে। আমরা অনেক খেলোয়াড়কে হারিয়েছি। কিন্তু সে দলকে টেনেছে। রায়ো ভায়োকানোর বিপক্ষে চার গোল করে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো ও করিম বেনজেমাকে ছাড়িয়ে গেছেন নেইমার। চলতি মৌসুমে স্প্যানিশ লা লিগার সর্বোচ্চ গোলদাতা এখন বার্সিলোনার ব্রাজিলিয়ান তারকা। পরশু রাতে নিজেদের মাঠ ন্যুক্যাম্পে ভায়োকানোকে ৫-২ গোলে উড়িয়ে দেয় কাতালানরা। লা লিগায় নেইমারের গোলসংখ্যা এখন ৮। রিয়াল মাদ্রিদের আক্রমণভাগের জুটি রোনাল্ডোর ও বেনজেমার গোল ৬টি করে।

এক ম্যাচে চার গোল নেইমার এর আগেও করেছেন। তবে বার্সিলোনার জার্সি গায়ে এক ম্যাচে চার গোল এই প্রথম করলেন। এর আগে ব্রাজিল জাতীয় দল ও সাবেক ক্লাব সান্টোসের হয়ে এই কীর্তি গড়েন তিনি। বার্সিলোনার হয়ে এটাকেই নিজের সেরা ম্যাচ উল্লেখ করে নেইমার বলেন, আমরা জয় পেয়েছি বলে আমি খুশি। আমার গোলগুলো আর পারফর্মেন্স নিয়েও খুশি। নেইমার আরও বলেন, তারা (ভায়োকানো) খুব কঠিন দল। তাদের মানসম্পন্ন কিছু খেলোয়াড় আছে। আমাদেরও কিছু লড়াই করতে হয়েছে। কিন্তু আমরা ভাল খেলেছি এবং জয় তুলে নিয়েছি। তাদের সব খেলোয়াড়দের অভিনন্দন জানাতে চাই আমি। নেইমার তার চার গোলের প্রথম দুটি করেন পেনাল্টি থেকে। পেনাল্টি দুটি আদায় করে নেন তিনি নিজেই। গোলও করেন আয়েশী ভঙ্গিতে। তবে এর রহস্য ভেদ করেননি তিনি। বলেন, আমি এটা আপনাকে বলতে পারছি না। কারণ আমি যদি এটা বলি তাহলে গোলরক্ষকরা বুঝে ফেলবে। কিন্তু আমি মার্ক, ক্লাওডিও ও জর্ডির সঙ্গে এটা অনুশীলন করি। বার্সিলোনার হয়ে ১০১ ম্যাচে ৬২ গোল করা নেইমার জানান, বার বার অনুশীলন করার ফলেই তিনি সাফল্য পেয়েছেন। ম্যাচ শেষে নেইমারের প্রশংসা করে বার্সা কোচ লুইস এনরিকে বলেন, অসাধারণ অপ্রতিরোধ্য। পেনাল্টি করা ছাড়া তাকে থামানো প্রায় অসম্ভব। তিনি আরও বলেন, তবে আমাদের রক্ষণভাগ নিয়ে আরও কাজ করতে হবে। শিরোপা জিততে আপনাকে আরও গোল করতে হবে এবং কম গোল খেতে হবে। আমরা এটা নিয়েই কাজ করব। ব্রাজিলিয়ান অধিনায়ক প্রশংসা পেয়েছেন সতীর্থদের কাছ থেকেও। ম্যাচ শেষে মিডফিল্ডার ইভান রাকিটিচ বলেন, আশা করছি, নেইমার কখনও থামবে না। আর আশা করছি, আমরাও তাকে বল যোগান দিয়ে যেতে পারব।

নির্বাচিত সংবাদ
এই মাত্রা পাওয়া