২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইব্রার জোড়া গোলে জয় পিএসজির

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কর্সিকা থেকে গ্লানি নিয়ে ফিরেছিল ফরাসী চ্যাম্পিয়ন প্যারিস সেইন্ট জার্মেইন (পিএসজি)। বিস্ময়করভাবে ৪-২ গোলে হেরে গিয়েছিল চ্যাম্পিয়নশিপ নিশ্চিত হওয়ার পর গত মৌসুমের একেবারে শেষদিকে। তবে এবার সেই বাস্তিয়ার বিপক্ষে প্রতিশোধ নিয়েছে পিএসজি। সুইডিশ তারকা জ¬াতান ইব্রাহিমোভিচের জোড়া গোলেই জয়টা তুলে নিয়েছে তারা। নিজেদের মাঠে এ জয়ের ফলে চলতি মৌসুমে ফ্রেঞ্চ লীগ ওয়ানে টানা চার জয় তুলে নিল পিএসজি। দ্বিতীয় স্থানে থাকা এ্যাঙ্গার্স ২-১ গোলে জয় পেয়েছে তাউলুসের বিপক্ষে।

যদিও ঘরের মাঠ, কিন্তু বাস্তিয়া প্রথম থেকেই চেপে ধরেছিল পিএসজিকে। ম্যাচের ৭২ মিনিট পর্যন্ত গোলশূূন্য থেকেছে। অথচ আগের ৯ ম্যাচে মাত্র তিন জয় ও ১ ড্রয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে বাস্তিয়ার পয়েন্ট টেবিলে অবস্থান ১৫ নম্বরে। ৭২ মিনিটের সময় দলকে স্বস্তি এনে দেন ইব্রাহিমোভিচ। খেলা শেষ হওয়ার ৭ মিনিট আগে দ্বিতীয় গোল করে দলকে ২-০ গোলের জয় এনে দেন তিনি। ১০ ম্যাচে এটি অষ্টম জয় পিএসজির। এখন পর্যন্ত অপরাজিতই থাকল তারা দুটি ড্র নিয়ে। ২৬ পয়েন্ট নিয়ে এককভাবে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে পিএসজি। এদিনের নৈপুণ্য অবশ্য লরেন্ট ব্লাঙ্ক শিষ্যদের জন্য তেমন প্রেরণাদায়ক কিংবা সন্তোষজনক ছিল না। কিন্তু এ জয় দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা এ্যাঙ্গার্সের চেয়ে ৫ পয়েন্ট এগিয়ে রেখেছে পিএসজিকে এখনও। ব্লাঙ্ক ম্যাচ শেষে বলেন, ‘আমি তিন পয়েন্ট পাওয়াতে খুব খুশি। কারণ এ জয়টা আমাদের আগামী সপ্তাহে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে মুখোমুখি হওয়ার জন্য ভালভাবে প্রস্তুত হওয়ার সুযোগ করে দেবে। আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার জন্য বিরতি শেষে ফিরতে অনেক খেলোয়াড়ই বিলম্ব করেছেন। এ কারণে এ ম্যাচটির জন্য ভাল প্রস্তুতি নেয়া সম্ভব হয়নি। তাছাড়া সবাই লম্বা পথ ভ্রমণ করে কিছুটা ক্লান্তও ছিলেন। কিন্তু এটাই বড় ক্লাবের মানদ-। বিশেষ করে দলে প্রচুর লাতিন আমেরিকানের উপস্থিতির কারণেই এমনটা সম্ভব হয়।’ এদিন নিয়মিত গোলরক্ষক কেভিন ট্রাপ ইনজুরির কারণে ছিলেন অনুপস্থিত। তাই প্রথমবারের মতো খেলার সুযোগ করে নেন সালভাতোর সিরিগু। এছাড়া ব্লেইস মাতুইদি নিষেধাজ্ঞার কারণে এবং ইনজুরির কারণে মার্কো ভেরাট্টি ও ডেভিড লুইজ খেলতে পারেননি। আবার আর্জেন্টাইন তারকা এ্যাঞ্জেল ডি মারিয়াকে এদিন বিশ্রাম দেয়া হয়েছিল। চ্যাম্পিয়ন্স লীগে রিয়ালের বিপক্ষে ম্যাচের জন্য তাকে তরতাজা রাখতেই ব্লাঙ্ক তাকে সাইডবেঞ্চে বসিয়ে রাখেন। এসব কারণেই বাস্তিয়ার বিপক্ষে কিছুটা সমস্যার মধ্যেই ছিল পিএসজি। এত তারকার অনুপস্থিতিতে সুযোগ পেয়েছিলেন আড্রিয়েন র‌্যাবিয়ট ও বেঞ্জামিন স্ট্যামবাউলি। তবে অনেক সুযোগ পেয়েও সেসব কাজে লাগাতে পারেনি পিএসজি। শেষ পর্যন্ত ইব্রাহিমোভিচ ম্যাজিকেই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ফরাসী চ্যাম্পিয়নরা।