২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রায়পুরে ভুয়া ক্লিনিক, চিকিৎসকের দৌরাত্ম

সংবাদদাতা, রায়পুর, লক্ষ্মীপুর ॥ লক্ষ্মীপুরের রায়পুর শহরে অবৈধ চিকিৎসা কার্যক্রম চালিয়ে আসছে অসাধু ক্লিনিক মালিক ও ভুয়া ডাক্তাররা। সেই সঙ্গে ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলো সরকারি বিধি নিষেধ উপেক্ষা করে নানা অনিয়ম চালিয়ে যাচ্ছে। নিরীহ রোগীদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। এতে করে সরকার মোটা অংকের রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। পাশাপশি ড্রাগ লাইসেন্সবিহীন ওষুধ ফার্মেসি প্রতিদিন গড়ে উঠছে। প্রশাসনের নাকের ডগায় প্রতারকরা ক্লিনিক ও হাসপাতাল খুলে চিকিৎসা কার্যক্রম চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলায় ৭৫টি দন্ত চিকিৎসালয়ের মধ্যে অনুমোদন আছে মাত্র ৪টির। ভুয়া ডাক্তারদের প্রয়োজনীয় শিক্ষাগত যোগ্যতা না থাকলেও তারা বিভিন্ন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের উপাধি ব্যবহার করে রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা করছে। অ্যালোপ্যাথিকের পাশাপাশি হারবাল ও হোমিও সার্টিফিকেট ব্যবহার করছেন কেউ কেউ। আবার প্রতারকরা পত্রিকা ও টেলিভিশনে বিভিন্ন স্থানে বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন। এক শ্রেণীর অসাধু ক্লিনিক মালিক ও দালাল চক্র এসব ঘটনায় জড়িত।

অনুসন্ধানে জানা যায়, সরকারি হাসপাতালকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠা ক্লিনিক বা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভুয়া ডাক্তাররা চিকিৎসা দিচ্ছেন। দালালের মাধ্যমে সরকারি হাসপাতাল থেকে রোগীদের এনে ওইসব স্থানে রোগীদের চিকিৎসা করা হচ্ছে। প্রশাসনের নাকের ডগায় ভুয়া চিকিৎসক, ক্লিনিক, হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলো এসব অবৈধ চালিয়ে আসছে। অভিযোগ রয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতরের কিছু অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীর সহায়তার তারা এ ব্যবসা চালাচ্ছে।

লক্ষ্মীপুরের সিভিল সার্জন ডা. গোলাম ফারুক ভূঁইয়া বলেন, এসব অনিয়মের অভিযোগ তিনিও পেয়েছেন। সহসা অভিযান পরিচালনা করা হবে।