২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অদম্য বাংলাদেশের চার সদস্য জামিন পেলেন

কোর্ট রিপোর্টার ॥ রাজধানীর বনশ্রীর এক বাসা থেকে ১০ শিশু উদ্ধারের ঘটনায় কারাগারে থাকা চার এনজিও কর্মী অবশেষে জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। জামিনপ্রাপ্তরা হলেন, এনজিও অদম্য বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান, সম্পাদক জাকিয়া সুলতানা, পরিচালক হাসিবুল ইসলাম সবুজ ও ফিরোজ আলম শুভ। সোমবার ঢাকা মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট ইউসুফ হোসেন মামলাটির ধার্য তারিখে শুনানি শেষে তাদের জামিন মঞ্জুর করেন। তাদের বিরুদ্ধে পাচারের অভিযোগের প্রমাণ না পাওয়ায় মামলায় চূড়ান্ত প্রতিবেদনও দিয়েছে পুলিশ।

জানা গেছে, আসামিরা নিরপরাধ হিসেবে বিভিন্ন মিডিয়ায় ঘটনার পর থেকে সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় পুলিশের উচ্চ পর্যায় থেকে সিএমএম আদালতকে জামিন দেয়ার ব্যাপারে সুপারিশ করা হয়েছিল। এর ফলে সোমবার আদালত তাদের জামিন মঞ্জুর করে। গত ১৬ সেপ্টেম্বর ঢাকা সিএসএম আদালত, এর পর ১৩ অক্টোবর মহানগর দায়রা জজ আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করেছিল।

গত ১১ সেপ্টেম্বর রামপুরার বনশ্রীর ‘সি’ ব্লকের ১০ নম্বর রোডের ৭ নম্বর বাসা থেকে ১০ শিশুকে উদ্ধার করা হয়। তারা হচ্ছে কুমিল্লা জেলার মোবারক হোসেন (১৪), ভোলার বাবুল (১০), আব্বাস (১০), স্বপন (১১), নোয়াখালীর আকাশ (৯), রফিক (১৪), পিরোজপুরের আবদুল্লাহ আল মামুন (১১), নারায়ণগঞ্জের ইব্রাহিম (১০), ময়মনসিংহের রাসেল (১৪) ও মৌলভীবাজারের ফরহাদ হোসেন (৯)। শিশু মোবারক হোসেনের চাচার অভিযোগের ভিত্তিতে গত ১১ সেপ্টেম্বর অভিযান চালিয়ে শিশুদের উদ্ধার করা হয়েছিল। শিশুটির চাচা মনির হোসেন মানবপাচার আইনে দায়ের করা মামলায় দাবি করেন, তার ভাতিজা মোবারক ৬ মাস পূর্বে হারিয়ে যায়। তিনি খোঁজ পেয়েছেন বনশ্রীর ওই বাসায় মোবারককে আটকে রাখা হয়েছে। মামলায় শিশুদের পাচারের উদ্দেশে আটক রাখা হয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয়।

প্রাথমিকভাবে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, অদম্য বাংলাদেশের এনজিও কার্যক্রম চালানোর নিবন্ধন নেই, সমাজসেবা অধিদফতরের কোন সনদও তারা নেয়নি। কিন্তু গ্রেফতার হওয়া চারজনকে নির্দোষ দাবি করে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে শুরু থেকেই আলোচনা চলতে থাকে। তাদের মুক্তির দাবিতে রাজপথে মানববন্ধনও হয়।