১৫ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চীনা হ্যাকাররা এখনও তৎপর

চীন সরকারের হ্যাকাররা মার্কিন কোম্পানিগুলোর গোপন তথ্য চুরি করার উদ্দেশ্যে এদের নেটওয়ার্কগুলোতে অনুপ্রবেশের জন্য গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই চেষ্টা চালিয়েছে। হ্যাকাররা ওই কাজ করবে না বলে চীনা প্রেসিডেন্ট জিনপিংয়ের প্রতিশ্রুতি সত্ত্বেও তা করার চেষ্টা চালানো হয়েছে। বেসরকারী গবেষকরা এ কথা জানান। খবর ওয়াশিংটন পোস্টের।

শি’র গত মাসে ওয়াশিংটনে প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করার পর চীনা হ্যাকাররা অন্তত সাতটি আমেরিকান কোম্পানি কে লক্ষ্য করে হ্যাকিং চালানোর চেষ্টা করে। চীন সাইবার অর্থনৈতিক গুপ্তচরবৃত্তি দেশের শিল্পের সুবিধার্থে গোপন বাণিজ্যিক ও মেধাসম্পদ চুরি করবে না বলে শি প্রতিশ্রুতি দেন। ক্রাউডস্টাইক একথা জানায়। এ ফার্মটি নেটওয়ার্ক অনুপ্রবেশ খুঁজে বের করতে ও রোধ করতে কোম্পানিগুলোকে সহায়তা করে থাকে।

শি‘র ওয়াশিংটন ত্যাগের পর তিন সপ্তাহ ধরে এমন কি তার বিদায়ের পরদিন ২৬ সেপ্টেম্বরও চীনা সরকারের সঙ্গে সম্পৃক্ত হ্যাকাররা টেক ও ওষুধ কোম্পানিগুলোর নেটওয়ার্কে ঢোকার চেষ্টা করে। ক্রাউডস্টাইকের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও চীফ টেকনোলজি অফিসার দিমিত্রি আলপেরোভিচ একথা জানান। তিনি সোমবার এ বিষয়ে এক রিপোর্ট প্রকাশ করেন। ঐ সব চেষ্টা বর্তমান সময় অবধি অব্যাহত রয়েছে এবং কখনও কখনও দিনে কয়েকবারও চালানো হয় এবং সেগুলো শি’র প্রতিশ্রুতির বাইরে থাকা গতানুগতিক গোপন তথ্য সংগ্রহের কাজ থেকে ভিন্ন বলে মনে হয়। আলপেরোচিভ একথা বলেন। মার্কিন গোয়েন্দারাও চীন হ্যাকারদের সাইবার অর্থনৈতিক গুপ্তচরবৃত্তির অব্যাহত থাকার লক্ষণ দেখতে পাচ্ছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মার্কিন কর্মকর্তা একথা জানান। কিন্তু এ পর্যায়ে এর অর্থ কি তা স্পষ্ট নয়। এক উর্ধতন সামরিক সাইবার প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা সম্প্রতি বলেন, চীনাদের অর্থনৈতিক গোয়েন্দাবৃত্তি বন্ধ হতে সময় লাগবে। ঐ কর্মকর্তা ইউএস সাইবার কমান্ডের ডেপুটি কমান্ডার লে. জে. জেমস কে ম্যাকলাফিন বলেন, আমাদের কারও পক্ষে ঐসব পরিবর্তন দেখতে পাওয়া এখনও অনেক দূরের বিষয়। তিনি ৯ অক্টোবর সেন্টার ফর স্ট্র্যাটেজিক এ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজে বক্তৃতা দিচ্ছিলেন।

যা হোক, চীনা হ্যাকারদের এ নয়া চেষ্টা বাণিজ্যিক সাইবার গুপ্তচরবৃত্তির পুনরারম্ভ বলে প্রমাণিত হলে, তা চীনের কাছে কৈফিয়ত চাইতে ওবামা প্রশাসনের ওপর চাপ বাড়াবে। রাষ্ট্রীয় সফরে ওয়াশিংটনে থাকাকালে শি প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হন। তখন শি প্রতিশ্রুতি দেন যে, চীন বাণিজ্যিক সুবিধার্থে গোপন বাণিজ্যিক না ব্যবসায়িক তথ্যসহ মেধাসম্পদ সাইবার যোগে চুরি করবে না বা, চুরি করা জেনেশুনে সমর্থন করবে না। ওবামা বলেন, বেজিংকে এখন অবশ্যই প্রতিশ্রুতি পালন করতে হবে। তিনি বলেন, এখন প্রশ্ন হলো, কথা কি কাজে রূপ নেবে? হোয়াইট হাউস ক্রাউডস্টাইকের রিপোর্ট সম্পর্কে ওয়াকিফবহাল রয়েছে বলে প্রশাসনের এক উর্ধতন কর্মকর্তা জানান।

তিনি বলেন, আমরা হোয়াইট হাউসের সুনির্দিষ্ট সিদ্ধান্ত সম্পর্কে মন্তব্য করব না। আমরা আগামীতে চীনের সাইবার তৎপরতা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করে যাব এবং চীনকে এর সব প্রতিশ্রুতি পালনের জন্য চাপ দিয়ে যাব। ওয়াশিংটন পোস্ট গত আগস্টে খবর দেয় যে, সম্ভবত শি’র সফরের আগেই প্রশাসন সরকারী উদ্যোগে পরিচালিত হ্যাকিংয়ের ফলে সুবিধা পেয়েছিল এমন চীনা কোম্পানিগুলোর ওপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রস্তুতি নিচ্ছিল।