২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

উত্তরাঞ্চলে আগাম আলু আবাদ শুরু

স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া অফিস ॥ অধিক সবজি উৎপাদন এলাকা উত্তরাঞ্চলে জলবায়ু পরিবর্তনের কোন প্রভাব পড়তে দেয়নি কৃষক। আকাশের অবস্থা দেখে ও বুঝে তারা ঠিক করে নেয় কখন কোন্ আবাদ করতে হবে। এই সময়টায় রবি মৌসুম শুরু না হতেই উত্তরাঞ্চলের কৃষক আগাম আলু আবাদ শুরু করেছে। বগুড়ার হাগরাই আলুর আবাদ এবার বেশি।

বৃহত্তর বগুড়া (বগুড়া জয়পুরহাট) অঞ্চলের আলুর যথেষ্ট সুনাম রয়েছে দেশজুড়ে। বিশেষ করে আঠাল ছোট গোল আলুর (হাগরাই আলু নামে অধিক পরিচিত) কদর এতটাই যে রাজধানী ঢাকাসহ বগুড়ার বাইরে থেকে কেউ বেড়াতে এলে দইয়ের সঙ্গে এই আলু নিতেই হবে। বগুড়ার মানুষ যারা বাইরে থাকে মৌসুম এলে এই আলু কিনে রাখার বাজেট থাকে তাদের। গেল ক’বছর ধরে বগুড়ার হাগরাই আলুর আবাদ বেড়েছে। এই আলু বেশি উৎপাদিত হয় বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার প্রতিটি গ্রামে। আলুর মৌসুমে বগুড়া জয়পুরহাট সড়কের কিচক ও পুনট হাট থেকে ট্রাকের পর ট্রাকে করে আলু নিয়ে যায় বাইরের মহাজনরা।

শিবগঞ্জ ছাড়াও হালে বগুড়া সদরের বিভিন্ন গ্রামে শহরতলির বাইপাস সড়কের ধারে সোনাতলা গাবতলি সারিয়াকান্দি ধুনট দুপচাচিয়া এলাকায় আলুর আবাদ সম্প্রসারিত হয়েছে।

বগুড়া সদরের নামুজা এলাকার কৃষক ফয়জার রহমান জানলেন, আগাম আলু বীজ বর্তমানে কিনতে হচ্ছে প্রতি ৮০ কেজির বস্তা ১৩শ’ টাকা দরে। বীজ আলু এভাবে বস্তা ধরেই কিনতে হয়। আগাম আলু বীজ বপনের পরের আলু আবাদে এই দাম কিছুটা কমে আসবে। তখন সাদা আলুসহ নানা জাতের আলু বীজ মিলবে। একটা সময় সাদা আলু হল্যান্ডের আলু নামেই পরিচিত ছিল। এখন তা আর নেই। আলুর অনেক জাত উদ্ভাবিত হয়েছে। কৃষি বিভাগের এক সূত্র জানায়, বছর কয়েক আগেও উত্তরাঞ্চলের ১৬ জেলায় প্রায় ৩ লাখ হেক্টর জমিতে আলু আবাদ হয়ে উৎপাদিত হতো প্রায় ৪৯ লাখ মেট্রিক টন। বর্তমানে আলু আবাদ ৪ লাখ হেক্টরের কাছাকাছি ঠেকেছে। উৎপাদিত হচ্ছে অন্তত ৬০ লাখ মে.টন। আলুর দামও পাচ্ছেন কৃষক।

নির্বাচিত সংবাদ
এই মাত্রা পাওয়া