২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা, পাবনা, ১৯ অক্টোবর ॥ পাবনা টাউন গার্লস হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক রবিউল করিম ফিরোজের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। উক্ত শিক্ষককে চাকরিচ্যুতিসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন অভিভাবকসহ স্থানীয়রা। এদিকে বিষয়টি ধামাচাপা দিতে ঘটনার পরদিন থেকে প্রধান শিক্ষক নানা কৌশলের আশ্রয় নিচ্ছেন। বিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক জানান, গত মঙ্গলবার ৬ষ্ঠ শ্রেণীর এক ছাত্রীকে (১২) অফিস কক্ষে ডেকে নিয়ে তার শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে নির্যাতন এবং ঐ ছাত্রীকে কাউকে কিছু বলতে নিষেধ করেন।

ওই ছাত্রী বাড়িতে অভিভাবকদের বিষয়টি খুলে বলে এবং পরদিন বিদ্যালয়ে এসে সকল শিক্ষক ও সহপাঠীদের জানায়। একপর্যায়ে বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থী ঘটনা জেনে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। অবস্থা বেগতিক দেখে প্রধান শিক্ষক কৌশলে দুপুরেই স্কুল ছুটি ঘোষণা করে সটকে পড়েন এবং ওই ছাত্রীর কাচারিপাড়া (সাহারা ক্লাবের পূর্ব পাশে) বাড়িতে গিয়ে অভিভাবকের হাত-পা ধরে ক্ষমা চান।

মুন্সীগঞ্জে শিক্ষকের বেত্রাঘাতে জ্ঞান হারাল ছাত্র

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ সিরাজদিখানে শিক্ষকের বেত্রাঘাতে ইমন হোসেন নামে এক ছাত্র জ্ঞান হারিয়েছে। সে রাজানগর-সৈয়দপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীতে পড়ে। এ ঘটনায় ওই বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। প্রত্যক্ষদর্শী সহপাঠিরা জানান, সোমবার সকাল ১০টার দিকে ইংরেজী ক্লাস নিচ্ছিলেন শ্রেণীশিক্ষক আতিকুল ইসলাম। এ সময় পাশের ক্লাস থেকে শিক্ষক তাপস বর্মণ এসে ইমনকে বেত্রাঘাত শুরু করেন। ইমন জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে পড়ে যায়। তাকে রাজানগর বাজারে একটি ফার্মেসিতে নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখানে স্যালাইন দেবার পর জ্ঞান ফিরে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ইমনের এক সহপাঠী জানান, ইমন পিটি ক্লাস ফাঁকি দেয়ায় ওই শিক্ষক তার প্রতি ক্ষিপ্ত হয়েই ইমনকে বেত্রাঘাত করে। প্রধান শিক্ষক আব্দুল খালেক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ইমনকে তেমন বেত্রাঘাত করা হয়নি। কিন্তু ওর প্রেসার কিছুটা লো থাকায় সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে।

নির্বাচিত সংবাদ