১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রাইম ব্যাংকের ৮ কর্মকর্তাকে দুদকে তলব

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিল-ভাউচার টেম্পারিং ও প্রতারণার মাধ্যমে প্রাইম ব্যাংকের প্রায় চার কোটি টাকা আত্মসাতের মামলা তদন্তে ব্যাংকের দুই ডিএমডিসহ আট কর্মকর্তাকে সাক্ষী হিসেবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। মঙ্গলবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদক কার্যালয় থেকে ব্যাংকের এমডি (ব্যবস্থাপনা পরিচালক) বরাবর তাদের জিজ্ঞাসাবাদের নোটিস পাঠানো হয়েছে। নোটিসে ১ নবেম্বর তাদের দুদকের জিজ্ঞাসাবাদে হাজির থাকতে বলা হয়েছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও দুদকের সহকারী পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান এ নোটিস করেছেন। দুদক সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

যাদের তলব করা হয়েছে তারা হলেন প্রাইম ব্যাংকের ডিএমডি (উপব্যবস্থাপনা পরিচালক) হাবিবুর রহমান, সাবেক ডিএমডি এ এস এম আনিসুল কবির, প্রধান কার্যালয়ের ভিপি মোঃ মোজাহিদ কবির, ইভিপি মোঃ মশিউর রহমান, এভিপি গিয়াস উদ্দিন আহম্মেদ, সিনিয়র এক্সিকিউটিভ অফিসার (এসইও) মোহাম্মদ ফজলুর রহমান পাটোয়ারী, এক্সিকিউটিভ অফিসার (ইও) লুথফুন নাহার ও সিনিয়র অফিসার মোঃ আব্দুস সবুর। দুদক সূত্র জানায়, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে বিল-ভাউচার টেম্পারিং ও প্রতারণার মাধ্যমে তিন কোটি ৯২ লাখ ১৯ হাজার ১৪ টাকা টাকা আত্মসাত করেন।

এ অভিযোগে ব্যাংকের এক্সিকিউটিভ অফিসার মোহাম্মদ ফজলুর রহমান পাটোয়ারী বাদী হয়ে ২০১৫ সালের ৯ মার্চ রাজধানীর মতিঝিল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরবর্তী সময়ে এ মামলার তদন্তভার দুদকে আসে। মামলার তদন্তের স্বার্থে ওই আটজনকে সাক্ষী হিসেবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হয়েছে। মামলার এজাহারভুক্ত আসামিরা হলেন প্রাইম ব্যাংকের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ অফিসার মীর মোঃ সাইফুল ইসলাম, সাবেক সিনিয়র এক্সিকিউটিভ অফিসার মোঃ শাহজাহান আলী সরকার, সাবেক ফ্যাসিলিটি স্টাফ মোঃ সালমান এফ রহমান ওরফে বাবু ও মোঃ জুলফিকার আলি।

এই মাত্রা পাওয়া