২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঝিনাইদহে জামাইকে প্রধান আসামি করে মামলা

  • মা-মেয়েকে পুড়িয়ে হত্যা

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝিনাইদহ, ২১ অক্টোবর ॥ কালীগঞ্জে ঘরে পেট্রোল ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে মা তাছলিমা বেগম ও মেয়ে শিশু তাসনিয়া খাতুন হত্যার ঘটনায় জামাই কামাল হোসেনকে প্রধান আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিহত তাছলিমা বেগমের বড় ছেলে টনি বিশ্বাস বাদী হয়ে ভগ্নিপতি কামাল হোসেনকে প্রধান আসামি করে অজ্ঞাত ৫ জনের নামে কালীগঞ্জ থানায় এ হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। এদিকে আগুনে দগ্ধ উর্মির বাবা চাঁন মিয়া ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে মৃত্যুযন্ত্রণায় ছটফট করছেন।

নজরুল ইসলাম ওরফে চান মিয়ার বড় মেয়ে ঊর্মি খাতুন জানান, আমার স্বামী কামাল হোসেন আমাকে মারতে চেয়েছিল। আমার কারণেই মা তাছলিমা খাতুন ও ছোট বোন শিশু তাসনিয়াকে জীবন দিতে হয়েছে। সে লোকজন নিয়ে এসে ঘরে পেট্রোল দিয়ে আগুন দিয়েছে। ঊর্মি খাতুন স্বামী কামালের দৃষ্টান্তমূলক বিচার চান।

কালীগঞ্জ থানার ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, হত্যা মামলার প্রধান আসামি কামাল হোসেনকে গ্রেফতারের জন্য মঙ্গলবার রাতে যশোরের লেবুতলা গ্রামে অভিযান চালানো হয়। তাকে পাওয়া যায়নি। হত্যাকা-ের পর কামালসহ তার পরিবারের লোকজন বাড়িঘরে তালা লাগিয়ে পালিয়ে গেছে বলে তাদের প্রতিবেশীরা পুলিশকে জানিয়েছে। বুধবার বিকেল পর্যন্ত ঘাতক কামাল হোসেনকে গ্রেফতার করা যায়নি। তবে শীঘ্রই তাকে গ্রেফতার করতে পারবে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার ফরাসপুর গ্রামে সোমবার মধ্যরাতে ঘরে পেট্রোল ছিটিয়ে আগুন ধরিয়ে দিলে অগ্নিদগ্ধ হয়ে মা তাসলিমা খাতুন ও তার দেড় বছরের শিশু কন্যা তাসনিয়া নিহত হয়। আহত হয় তাসলিমা বেগমের স্বামী নজরুল ইসলাম ওরফে চানমিয়া ও বড় মেয়ে উর্মি খাতুন।